অ্যাপে ফেসবুকে জরুরি রক্ত

শেয়ারবাজার ডেস্ক: যেকোনো সময় যে কারও প্রয়োজন হতে পারে এক ব্যাগ রক্তের। আর সে সময় তার বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়স্বজন প্রয়োজনীয় গ্রুপের রক্তদাতা খুঁজতে গিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েন। এ সমস্যার ভালো একটা সমাধান ভার্চ্যুয়াল মাধ্যম। রক্তদাতা খোঁজার বেশ কিছু অ্যাপ এবং ফেসবুক গ্রুপ আছে। আবার বাংলাদেশে রক্তদাতা খোঁজার জন্য ফেসবুকের নিজস্ব সেবাও চালু হয়েছে। সেসব অ্যাপ এবং ফেসবুক গ্রুপের কথা থাকছে এখানে।

লাইফ প্লাস

অ্যাপটিতে মূলত রক্তদাতা ও রক্তগ্রহীতা—সবাই নিবন্ধন করতে পারেন। যাঁরা রক্ত দিতে আগ্রহী, তাঁদের রক্তদাতা হিসেবে নিবন্ধন করতে হবে। আর রক্তদাতার সন্ধানে রক্তসন্ধানীরা অ্যাপের সার্চ ট্যাবে গিয়ে রক্তের যে গ্রুপ দরকার, তা নির্বাচিত করতে পারবেন। জাতীয় পরিচয়পত্র ও রোগীর ব্যবস্থাপত্র যুক্ত করার ব্যবস্থা আছে। তারপর সাবমিট বোতামে চাপ দিলে একটি তালিকা দেখাবে, সেখানে কারা কারা ওই গ্রুপের রক্তদাতা আছেন তাঁদের নাম দেখাবে। রক্তগ্রহীতা থেকে রক্ত দিতে ইচ্ছুক কে, কত দূরে আছেন তা-ও জানা যায় এই অ্যাপে। গুগল প্লে স্টোর থেকে বিনা মূল্যে নামানো যায় অ্যাপটি। নামানোর ঠিকানা: http://bit.ly/2vONixh

এসো ব্লাড ফাইন্ডার

এই অ্যাপে শুধু একটি ফোন নম্বরের মাধ্যমে যাচাইসহ নিবন্ধন করা যায়। যাচাই করতে হবে যে নম্বর দিয়ে আপনি নিবন্ধন করছেন, সেই নম্বরে আসা কোডের মাধ্যমে। এতে কোন কোন দাতা এই মুহূর্তে রক্তদানের জন্য যোগ্য তার তালিকা আছে। চাইলেই আপনি তাৎক্ষণিক রক্তের জন্য নির্দিষ্ট দাতার কাছে আহ্বান জানাতে পারবেন। সার্চ ব্যবস্থার মাধ্যমে অনায়াসে আপনি আপনার চাহিদা অনুযায়ী নির্দিষ্ট জায়গার নির্দিষ্ট রক্তের গ্রুপের দাতাদের খুঁজে বের করতে পারবেন। আপনি যে জায়গায় অবস্থান করছেন, সেই জায়গার কাছাকাছি দাতাদের খুঁজে বের করতে পারবেন ম্যাপের মাধ্যমে। নামানোর ঠিকানা: http://bit.ly/2JsLyLZ

ব্লাড হিরো

জরুরি প্রয়োজনে রক্তদাতার তথ্য জানতে ‘ব্লাড হিরো’ খুবই কার্যকরী। অ্যাপটিতে রয়েছে নির্দিষ্ট গ্রুপের রক্ত সংগ্রহে রক্তদাতাদের গ্রুপ ও এলাকাভিত্তিক তথ্য। এতে জিপিএস যুক্ত থাকায় নির্দিষ্ট এলাকার প্রয়োজনীয় গ্রুপের রক্তদাতাদের খুব সহজেই খুঁজে পাওয়া যায়। রক্তদাতাদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলা অথবা এসএমএসের মাধ্যমে যোগাযোগ করা যায়। নিরাপত্তার কারণে চাইলে রক্তদাতা নিজের মুঠোফোন নম্বরটি গোপন রাখতে পারেন। নামানোর ঠিকানা: http://bit.ly/2HsOzPS

রিভাইভ

এই অ্যাপে নিজের এবং অন্য যে কারও জন্য রক্তের অনুরোধ করা যায়। কোনো দাতা যদি রক্ত দিতে আগ্রহী হয় তাহলে দাতার মুঠোফোন নম্বর এতে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই দেখায়। আশপাশের দাতাদের মুঠোফোন নম্বরে এসএমএস করা যায় যাতে কোনো দাতা যদি ইন্টারনেটে যুক্ত নাও থাকে, তাহলেও যেন সে তা জানতে পারে। অ্যাপটির ডোনার ইউজার ফিচারের মাধ্যমে আশপাশের হাসপাতালে রক্তের প্রয়োজন হলে তার নোটিফিকেশন পাওয়া যায়। কত দূর যেতে ইচ্ছুক তার ওপর নির্ভর করে এই নোটিফিকেশন আসবে। তবে একবার রক্ত দিলে পরবর্তী তিন মাসে আর কোনো নোটিফিকেশন আসবে না। নামানোর ঠিকানা: http://bit.ly/2r1kJqI

বর্তমানে রক্তদাতা এবং গ্রহীতার মধ্যে যোগাযোগ করিয়ে দিতে কাজ করে যাচ্ছে বেশ কিছু ফেসবুক গ্রুপ।

বিডি ব্লাড ব্যাংক

রক্তের প্রয়োজনে এই গ্রুপে পোস্ট করতে হলে আপনাকে যে তথ্যগুলো দিতে হবে তা হলো রোগীর সমস্যা, রক্তের গ্রুপ ও কত ব্যাগ রক্ত লাগবে, হাসপাতালের নাম ও ঠিকানা, কোন সময়ের মধ্যে রক্ত লাগবে এবং যোগাযোগের জন্য মুঠোফোন নম্বর। ঠিকানা: https://www.facebook.com/groups/BDBloodTeam

ব্লাড ডোনেশন বাংলাদেশ

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ই-ব্লাড ব্যাংক বলা যেতে পারে এই গ্রুপটিকে। রক্তের প্রয়োজনে গ্রুপটিতে অনুরোধ করতে হলে আপনাকে রোগীর সমস্যা, রক্তের গ্রুপ ও কত ব্যাগ লাগবে, হাসপাতালের নাম ও ঠিকানা, ব্লক বা ওয়ার্ড, কেবিন বা বেড নম্বর, (হাসপাতালে ভর্তি না হলে উল্লেখ করতে হবে ‘বহির্বিভাগ’) কবে ও কত সময়ের মধ্যে লাগবে, মুঠোফোন নম্বর এবং নাম জানাতে হবে। গ্রুপে যোগ দেওয়ার পর আপনার রক্তের গ্রুপ, নাম, ঠিকানা, মুঠোফোন, ই-মেইল ঠিকানা দিয়ে গ্রুপে রক্তের জন্য পোস্ট করা যায়। ঠিকানা: https://www.facebook.com/groups/ roktodhin

ফেসবুক

এ ছাড়া ফেসবুকের নিজস্ব একটি সুবিধার মাধ্যমে নিকটবর্তী রক্তদাতা এবং রক্তগ্রহীতারা যোগাযোগ করতে পারবেন।

https://www.facebook.com/donateblood ঠিকানার ওয়েবসাইটে গিয়ে যে কেউ রক্তদাতা হিসেবে নিবন্ধন করে রাখতে পারেন। আপনি ফেসবুকের একজন নিবন্ধিত রক্তদাতা হলে আপনার আশপাশের কারও রক্তের প্রয়োজন হলো ফেসবুক তখন আপনাকে নোটিফিকেশন পাঠাবে। একইভাবে নোটিফিকেশনে সাড়া দিয়ে জানানো যাবে যে আপনি রক্তদানে ইচ্ছুক।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top