রেকর্ড ভাঙার লড়াইয়ে দুই মাদ্রিদ!

শেয়ারবাজার ডেস্ক: রেকর্ড ভাঙার লড়াইয়ে নেমেছে রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালে উঠেছে। আর তাদেরই নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ আর্সেনালকে হারিয়ে উঠেছে ইউরোপা লিগের ফাইনালে। রেকর্ডটা ছুঁতে দুই ধাপ বাকি। একটি ধাপ রিয়াল মাদ্রিদকে পেরুতে হবে। আরেকটি ধাপ ভাঙতে হবে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদকে। মাদ্রিদের দুই ক্লাব তবেই ২৪ বছর আগের একটি রেকর্ড ছুঁতে পারবে।

রেকর্ডটি আগে ছিল ইতালির দুই নগর প্রতিদ্বন্দ্বীর দখলে। এখান থেকে ২৪ বছর আগে এসি মিলান এবং ইন্টার মিলান দুটি ইউরোপের শিরোপা জিতেছিল। এর আগে ১৯৯৪ সালে এসি মিলান জিতেছিল চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল। একই মৌসুমে ইন্টার মিলান জিতেছিল উয়েফা কাপের ফাইনাল। এবার অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ইউরোপা লিগের শিরোপা জেতার লক্ষ্যে ১৬ মে ফ্রান্সের ক্লাব মার্সেইয়ের মুখোমুখি হবে। এর ১০ দিন পর রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে মুখোমুখি হবে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলের।

এ বছর এখন পর্যন্ত কোন শিরোপা ঘরে তুলতে পারেনি দুই মাদ্রিদ। তবে সুযোগ এসেছে দুই মাদ্রিদের নাগালে। রিয়াল মাদ্রিদ কিংবা অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সামনে চলতি মৌসুমের তিনটি ইউরোপ সেরার ট্রফি ঘরে তোলার সুযোগ হাতে এসেছে এই দুই দলের কাছে। কারণ ইউরোপিয়ান সুপার কাপে দেখা যেতে পারে মাদ্রিদ ডার্বি। দুই মাদ্রিদের যে কোন দল ইউরোপিয়ান সুপার কাপের ফাইনাল খেলতে পারে এবং মাদ্রিদের যে কোন দল উঁচিয়ে ধরতে পারে ইউরোপের ডাবল শিরোপা।

এর আগে প্রথমবার রিয়াল মাদ্রিদ এবং অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ১৯৬২ সালে ইউরোপের আলাদা দুটি ফাইনাল খেলেছে। কিন্তু সেবার অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ শিরোপা ঘরে তুললেও ব্যর্থ হয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। এরপর ১৯৮৬ সালে মাদ্রিদের দুই দলের সামনে একইরকম সুযোগ এসেছে। সেবার রিয়াল পারলেও পারেনি অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ২০১৪ ও ২০১৬ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগে মাদ্রিদ ডার্বি দেখা গেছে। কিন্তু দু’বারই জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top