বাজেটের পর সঞ্চয়পত্রে সুদের হার কমবে: অর্থমন্ত্রী

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটের পর সঞ্চয়পত্রের সুদের হার সমন্বয় (কমানো) হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

তিনি বলেন, সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কিছুটা বেশি বলে সব পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে। এ খাতের সুদের হার বাজেটের পর সমন্বয় করা হবে। সরকার আগামী ২০১৯-২০২০ অর্থবছর থেকে দুই স্তরের ভ্যাট ব্যবস্থা কার্যকরের পরিকল্পনা নিয়েছে। কর্পোরেট করের হার কমানোর বিষয়টি সরকারের সক্রিয় বিবেচনাধীন রয়েছে। দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (বিডা) ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নিয়েছে, যার মাধ্যমে বিনিয়োগ প্রস্তাব জামা দেওয়ার ৭ মাসের মধ্যে বিনিয়োগ সহায়তা দেওয়া যাবে।

শনিবার (১২ মে) ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই), দৈনিক সমকাল ও চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের উদ্যোগে প্রাক-বাজেট আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রাক-বাজেট আলোচনা সঞ্চলানা করেন সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার।

উল্লেখ্য, গত বছরের বাজেটের আগেও সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানোর ঘোষণা দিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন অর্থমন্ত্রী।

প্রাক-বাজেট আলোচনায় অর্থমন্ত্রী দেশের বাণিজ্য প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে সুষম প্রতিযোগিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ‘কমপিটিশন অ্যাক্ট’ জরুরী বলে জানান। ২৬টি সরকারি প্রতিষ্ঠনের শেয়ার পুঁজিবাজারে না আসতে পারার বিষয়টি অত্যন্ত হতাশার বিষয় বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

আগামী বাজেটে কর্পোরেট কর কিছুটা কমানোর ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীকে এ বিষয়ে অবহিত করেছি। তরুণরা কর দিতে আগ্রহী। তাদের ওপর বিশ্বাস রেখে এবার করপোরেট কর হার কমাচ্ছি।

এর আগে বাজেট প্রস্তাবনায় ডিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি হোসেন খালেদ কর্পোরেট ডিভিডেন্ডের আয়ের ওপর বহুস্তর কর প্রত্যাহারের পাশাপাশি কর হার ২০ শতাংশের পরিবর্তে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনার সুপারিশ করেন।

ব্যক্তি শ্রেণিতে আড়াই লাখ টাকার পরিবর্তে তিন লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করমুক্ত করার প্রস্তাব করা হয়। এছাড়াও পাট খাতের উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদী কৌশলগত মহাপরিকল্পনা, জুট পেপার এবং পাল্প আইন প্রণয়ন, পাট পণ্যের বহুমূখীকরণ, পাটের মণ্ড এবং কাগজ তৈরি সংক্রান্ত গবেষণায় বাজেটে বরাদ্দ, পাটপণ্য রফতানিতে নগদ সহায়তা এবং এলসির মাধ্যমে পাটপণ্যের রফতানি বাধ্যতামূলক করার প্রস্তাব তুলে ধরা হয়। কর ও ভ্যাট নিয়ে আলোচনায় ঢাকা চেম্বারের পক্ষ থেকে ধাপে ধাপে কর কমানোর প্রস্তাব করা হয়।

আইডিএলসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফ খান বলেন, ‘সঞ্চয়পত্রের সুদের হার খুবই বেশি, যার কারণে আশানুরূপ হারে বন্ড মার্কেটের উন্নয়ন হচ্ছে না।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top