ফের সাড়ে ৫ হাজারের নিচে সূচক: অদৃশ্য হাতের কাছে বন্দি শেয়ারবাজার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: গেল মার্চ মাসে সূচক সাড়ে ৫ হাজারের নিচে নেমে এসেছিল। বিভিন্ন মার্চেন্ট ব্যাংক ও সিকিউরিটিজ হাউজের সিইওরা বলেছিলেন এর নিচে সূচক নামবে না। সেই থেকেই সূচক ঊর্ধ্বমুখী পানে ছুটতে থাকে। এক পর্যায় ৫ হাজার ৮০০ পয়েন্ট ছাড়িয়ে ফের পতনের সুর নেয় শেয়ারবাজার। টানা ১২ কার্যদিবসের দরপতনে পুনরায় সাড়ে ৫ হাজারের নিচে সূচক অবস্থান করছে। অর্থমন্ত্রনালয়, বিএসইসি,ডিএসই,সিএসইসহ অন্যান্য নীতিনির্ধারণী মহল বর্তমান বাজারকে ঘিরে শুধু হতাশাই প্রকাশ করে যাচ্ছেন। সবাই বলছেন, অদৃশ্য হাতের কাছে বন্দি হয়ে রয়েছে শেয়ারবাজার। তাদের কলকাঠি নাড়ার ওপরই মার্কেটের ভালো মন্দ নির্ভর করছে। আসন্ন বাজেটের পর বাজার ঘুরে দাঁড়াবে। কিন্তু এ মূহূর্ত্বে কার্যকরী ব্যবস্থা না নিলে বাজেটের আগেই সূচকের বারোটা বেজে যাবে।

আজ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। এরই ধারাবাহিকতায় টানা ১২ কার্যদিবস পতনে বিরাজ করছে বাজার। যার ফলে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স সাড়ে ৫ হাজারের নিচে অবস্থান করছে। বৃহস্পতিবার সূচকের পাশাপাশি ৭৫.৬০ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার দর কমেছে। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৯২ কোটি টাকা।

এদিকে আজ দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ব্রড ইনডেক্স গত সাড়ে ১১ মাসের সর্বনিম্ন অবস্থানে নেমেছে। ডিএসই ব্রড ইনডেক্স ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৬৮.৪৫ পয়েন্ট কমে ৫৪৪৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এর আগে ১লা জুন, ২০১৭ সালের সূচক এ অবস্থানে ছিল।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৬৮ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫৪৪৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১২৭৭ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৩০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২০২৫ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৪৪টির, কমেছে ২৫৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৪৯২ কোটি ৭৯ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস অর্থাৎ বুধবার ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫৫১১ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১২৯১ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২০৫৫ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৩৯৪ কোটি ৮৬ লাখ ৩৮ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৯৭ কোটি ৯৩ লাখ ৩৮ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ১৩৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১০ হাজার ১৫২ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২২৫টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩০টির, কমেছে ১৭৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৫১ কোটি ৪৫ লাখ ২৯ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top