যে কারণে কুইন সাউথের শেয়ার দর বাড়ছে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: গেলো ২৯ মার্চ বস্ত্রখাতের কুইন সাউথ টেক্সটাইল মিলসের শেয়ার দর ছিলো ২৭.৭০ টাকা। সেই থেকে যে বাড়া শুরু করলো একেবারে ৫০ টাকা ছাড়িয়ে গেলো। অবশ্য কোম্পানির কাছে দর বৃদ্ধির কোনো অপ্রকাশিত তথ্য নেই বলে জানানো হয়েছে। কিন্তু এ কোম্পানির শেয়ার দর বৃদ্ধির কারণ হিসেবে মার্কেটেই নানা গুজব ছড়িয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার চীনা কনসোর্টিয়াম হওয়ার পর পুঁজিবাজারে চীনা পরিচালকদের মালিকাধীন যেসব কোম্পানি থাকবে সবগুলোতেই তারা বিনিয়োগে যাবে। তারা চাইবে তাদের দেশের কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ুক। এই অনুমানের হনুমান হয়ে এক শ্রেণীর বিনিয়োগকারী চীনা পরিচালকদের মালিকাধীন কোম্পানিগুলোর দিকে ঝুঁকে পড়লো। শেফার্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের শেয়ার দরও লাফিয়ে বাড়লো। সেই সঙ্গে কুইন সাউথের শেয়ার দরতো চোখে পড়ার মতো বাড়ছে। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির পর যেই কুইন সাউথ নিয়ে বিনিয়োগকারীদের শুধু হতাশা দেখা গেছে। সেই কুইন সাউথ এখন আলাদিনের চেরাগ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যার নেপথ্যে শুধুই গুজব।

তবে গুজবের পাশাপাশি দর ‍বৃদ্ধির পেছনে কোম্পানির পক্ষ থেকে কিছু যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে। গত ডিসেম্বরে সুতার দাম কম ছিলো। এখন সুতার দাম ১০ থেকে ১৫ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ছে। যেহেতু কুইন সাউথের প্রধান ব্যবসাই হচ্ছে সুতা বিক্রি। আর সুতার দাম বাড়াতে তারা বেশি দামে সুতা বিক্রি করতে পারছে। এতে সামনে কোম্পানির মুনাফা বাড়তে পারে। সেই ধারণা থেকে বিনিয়োগকারীরা এ কোম্পানির শেয়ারে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ দেখিয়েছেন। যে কারণে এ কোম্পানির শেয়ার দর বাড়ছে বলে জানা গেছে।

জানা যায়,  চলতি বছর পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া কুইন সাউথের অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি টাকা ও পরিশোধিত মূলধন ১০০ কোটি ১৫ লাখ টাকা। এর রিজার্ভ ও সারপ্লাসের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬১ কোটি ১৬ লাখ টাকা। এ কোম্পানির মোট ১০ কোটি ১ লাখ ৫০ হাজার শেয়ারের মধ্যে পরিচালনা পর্ষদের কাছে রয়েছে ৫৩.২৩ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ১৬.৬৯ শতাংশ, বিদেশি ১৬.৮১ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ১৩.২৭ শতাংশ শেয়ার।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top