মে মাসে বাজার একদিনের জন্যও পজিটিভ হতে পারেনি

গত ৩০শে এপ্রিল ২০১৮ থেকে বাজার নেগেটিভ হতে শুরু করে এখন পর্যন্ত বাজার নেগেটিভ। দিন হিসেব করলে গত ২০ দিন থেকে টানা নেগেটিভ। আর কার্য দিবস হিসাব করলে গত ১২ কার্য দিবস থেকে টানা নেগেটিভ। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের রেকর্ড বলে গত ১০ বছরে এর আগে টানা ১২ কার্য দিবস এই ভাবে নেগেটিভ ছিল না। যা এই বার আমরা দেখতে পেলাম। এই ২০ দিনের মধ্যে বাজার একদিনের জন্যও পজিটিভ ছিল না।

বাজারের এই নেগেটিভ হওয়ার পেছনে সবচেয়ে বড় ভুমিকায় ছিল গ্রামীণ ফোন এবং ব্যাংকগুলো। আমাদের দেশের বেশিরভাগ বিনিয়োগকারী ইনডেক্সের গতিবিধি দেখে শেয়ার কেনা-বেচা করে। তাই ইনডেক্স নেগেটিভ হওয়ায় অন্যান্য শেয়ার গুলোর উপরেও বাজার নেগেটিভ হওয়ার একটা প্রভাব পড়েছে।

সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হচ্ছে এই মে মাসের ১৪ তারিখে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে চীনা কনসোর্টিয়াম শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের সাথে চুক্তি সই করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। চীনের দুই শেয়ারবাজার শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের কনসোর্টিয়াম কৌশলগত বিনিয়োগকারী হওয়ায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত হবে। যা শেয়ারবাজারের জন্য খুবই ইতিবাচক। বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের জন্য এতো ভালো একটি খবরও বাজারকে এক দিনের জন্যও পজেটিভ করতে পারিনি। যা পুঁজিবাজারের প্রত্যেক বিনিয়োগকারীদের অবাক করে দিয়েছে। বাজারের এই আচরণ যে মোটেও স্বাভাবিক নয় তা বোধ করি বাজারের সাথে সম্পৃক্ত আছে এমন সবাই বুজতে পারবে। একটি কথা মাথায় রাখতে হবে অস্বাভাবিক কোন কিছুই বেশি দিন স্থায়ী হয় না। কিছুদিনের মধ্যেই তাকে স্বাভাবিক আচরণে ফিরে আসতে হয়। তাই আশা করছি আগামী কিছু দিনের মধ্যেই বাজার তার স্বাভাবিক আচরণে ফিরে আসবে।

আমি প্রথমেই বলেছি ইনডেক্স পড়ে যাওয়ার মূল ভুমিকায় ছিল গ্রামীণ ফোন এবং ব্যাংকগুলো। তাই বিনিয়োগকারী ভাইদের বলবো শুধু শুধু ইনডেক্সের দিকে তাকিয়ে আপনার হাতে থাকা জুন ক্লোজিং শেয়ার গুলো বছরের সর্বনিম্ন রেটে বিক্রি করবেন না। বাজার ঘুরে গেলে দেখবেন কয়েক দিনের মধ্যেই আপনি আপনার পুঁজি ফিরে পাবেন। আরও একটি বিষয়, যে যাই বলুক আপনি নিশ্চিত থাকুন কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে চীনা কনসোর্টিয়াম শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের সাথে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের এই পথ চলা আমাদের বাজারকে সামনে অনেক দূর নিয়ে যাবে। এতে বিন্দু মাত্র কোন সন্দেহ নেই। ধন্যবাদ।

 

লেখক: তানভীর আহমেদ।

শেয়ার বিনিয়োগকারী

উত্তরা, ঢাকা।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

 

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top