পুঁজিবাজারে ১৪২ কোটি টাকা বিনিয়োগের শর্তে ট্যাক্স অব্যাহতি চায় ডিবিএ

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: কৌশলগত অংশীদার হিসেবে শেনঝেন-সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের কাছে ব্লকড অ্যাকাউন্টে রক্ষিত এক-চতুর্থাংশ শেয়ার প্রায় ৯৪৭ কোটি টাকায় বিক্রির জন্য শেয়ার ক্রয়চুক্তি (এসপিএ) স্বাক্ষর সম্পন্ন করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। আয়কর অধ্যাদেশ অনুসারে শেয়ার হস্তান্তরের কারণে উদ্ভূত মূলধনি মুনাফার ওপর ১৫ শতাংশ হারে ১৪২ কোটি টাকার ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স দিতে হবে ডিএসইর শেয়ারহোল্ডারদের। তবে বাজারের স্বার্থে মূলধনি মুনাফার অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের শর্তে ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্সে অব্যাহতি চাইছেন এক্সচেঞ্জটির শেয়ারহোল্ডাররা। এ নিয়ে শিগগিরই অর্থমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব দেয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে ডিএসই ব্রোকারেজ অ্যাসোসিয়েশন (ডিবিএ)।

আয়কর অধ্যাদেশ অনুসারে বর্তমানে ব্যক্তিশ্রেণীর বিনিয়োগকারীরা মূলধনি মুনাফার ওপর শতভাগ কর অব্যাহতি সুবিধা পাচ্ছেন। এর বাইরে কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের ক্ষেত্রে শেয়ার হস্তান্তরের কারণে উদ্ভূত মূলধনি মুনাফার ওপর ৫ শতাংশ হারে কর দিতে হয়। আর আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪-এর ৫৩এন ধারায় বলা হয়েছে, স্টক এক্সচেঞ্জের শেয়ারহোল্ডারদের ক্ষেত্রে শেয়ার হস্তান্তরের কারণে উদ্ভূত মূলধনি মুনাফার ওপর ১৫ শতাংশ হারে ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স প্রযোজ্য হবে।

আয়কর আইনের সংশ্লিষ্ট ধারার বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে ডিএসইর শেয়ারহোল্ডাররা বলছেন, কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের মতো ডিএসইর শেয়ারহোল্ডাররাও একইভাবে এক্সচেঞ্জটিতে উদ্যোক্তা হিসেবে বিনিয়োগ করেছেন। অথচ কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের ক্ষেত্রে ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স ৫ শতাংশ হলেও ডিএসইর শেয়ারহোল্ডারদের জন্য এটি ১৫ শতাংশ। এ ধরনের বিধানকে বৈষম্যমূলক হিসেবে আখ্যায়িত করে এক্সচেঞ্জটির শেয়ারহোল্ডাররা বলছেন, পুঁজিবাজার ও স্টক এক্সচেঞ্জের উন্নয়নের স্বার্থে কৌশলগত অংশীদারের কাছে শেয়ার বিক্রির ওপর প্রযোজ্য ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স থেকে অব্যাহতি দেয়া দরকার। প্রয়োজনবোধে কৌশলগত অংশীদারের কাছে শেয়ার বিক্রির পুরো টাকাই পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করার শর্তে কর অব্যাহতি চাওয়া হবে। তবে শতভাগ কর অব্যাহতি পাওয়া না গেলে কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের মতো ৫ শতাংশ হারে কর দিতে আগ্রহী ডিএসইর শেয়ারহোল্ডাররা।

জানতে চাইলে ডিবিএর প্রেসিডেন্ট মোস্তাক আহমেদ সাদেক বলেন, এ মাসের শেষ সপ্তাহে অর্থমন্ত্রী আমাদের সময় দিয়েছেন। স্টক এক্সচেঞ্জের উন্নয়ন ও পুঁজিবাজারের স্বার্থে কৌশলগত অংশীদারের কাছে শেয়ার বিক্রির ওপর প্রযোজ্য ১৫ শতাংশ ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স অব্যাহতির প্রস্তাব দেয়া হবে। কৌশলগত বিনিয়োগকারীর কাছ থেকে পাওয়া পুরো অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের শর্তে হলেও আমরা ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্সে ছাড় চাইব। শতভাগ কর অব্যাহতি পাওয়া না গেলেও সাধারণ কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের মতো ডিএসইর শেয়ারহোল্ডারদের জন্য ৫ শতাংশ হারে ক্যাপিটাল গেইন ট্যাক্স নির্ধারণ করার দাবি জানানো হবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ৬ ফেব্রুয়ারি কৌশলগত অংশীদারদের প্রস্তাবসংবলিত টেন্ডার বাক্স উন্মোচন করে ডিএসই। দরপত্র প্রক্রিয়ায় কৌশলগত অংশীদারের জন্য সংরক্ষিত ডিএসইর ১৮০ কোটি ৩৭ লাখ ৭৬ হাজার ৫০০ শেয়ারের এক-চতুর্থাংশ শেয়ার কিনতে চীন ও ভারতে দুটি কনসোর্টিয়ামের প্রস্তাব জমা হয়। এর মধ্যে শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের চীনা কনসোর্টিয়াম ডিএসইর প্রতি শেয়ারের জন্য ২২ টাকা হারে ৯৯২ কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব করে। তবে মধ্যবর্তী সময়ে সর্বশেষ হিসাব বছরের জন্য বর্তমান শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়ায় ডিএসইর প্রতিটি শেয়ারের ভ্যালুয়েশন কিছুটা কমে যায়, যা চূড়ান্ত এসপিএতে সমন্বয় করা হয়েছে। চীনা কনসোর্টিয়ামের কাছ থেকে এখন ডিএসই প্রতিটি শেয়ারের জন্য ২১ টাকা হারে প্রায় ৯৪৭ কোটি টাকা পাবে। এর বাইরে তারা ডিএসইকে বিনামূল্যে বিভিন্ন কারিগরি ও প্রযুক্তিগত সহায়তা দেবে চীনা কনসোর্টিয়াম, যার মূল্য উল্লেখ করা হয় ৩০৮ কোটি টাকা। অন্যদিকে ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জের (এনএসই) সাবসিডিয়ারি এনএসই স্ট্র্যাটেজিক ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন লিমিটেডের নেতৃত্বাধীন কনসোর্টিয়াম ডিএসইর একই পরিমাণ শেয়ারের জন্য ১৫ টাকা হারে ৬৭৬ কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব করে। দর প্রস্তাব ও কারিগরি দিক বিবেচনায় ডিএসইর শেয়ারহোল্ডাররা চীনা কনসোর্টিয়ামকে কৌশলগত অংশীদার হিসেবে চূড়ান্ত করেন। ১৪ মে সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেল অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের উপস্থিতিতে ডিএসই ও শেনঝেন-সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে এসপিএ স্বাক্ষর হয়।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top