হতাশার আরেকটি সপ্তাহ পার করলো বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতন ঘটেছে পাশাপাশি সব ধরনের সূচক কমেছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে ৪দিনই কমেছে সূচক। বাকি এক কার্যদিবস বাড়লেও এর মাত্রা ছিলো সামান্য। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে প্রায় সব ধরনের সূচক কমেছে। এদিকে সূচকের পাশাপাশি কমেছে কোম্পানির শেয়ার দর। আর গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা কমেছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ২৬৫ কোটি ১৬ লাখ ৮১ হাজার ৪৯ টাকা।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহশেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে ১.৫৮ শতাংশ বা ৮৫.৮১ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ১.৯৮ শতাংশ বা ৩৯.৮৮ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক কমেছে ১.৭০ শতাংশ বা ২১.৩৯ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৪৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০২টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ২১৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির। আর লেনদেন হয়নি ১টি কোম্পানির শেয়ার। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ২ হাজার ২৬৫ কোটি ১৬ লাখ ৮১ হাজার ৪৯ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৩৫৭ কোটি ৯৪ লাখ ৩৯ হাজার ২৬১ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ৩.৯৩ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮২.৮৮ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৬.৬৬ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৯.৬৩ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ০.৮৩ শতাংশ।

সপ্তাহশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ১৪৩.৬৯ পয়েন্ট বা ১.৪২ শতাংশ কমে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৯৭৬ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাত বদল হওয়ার ২৮২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯২টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৭৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৪টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১০৬ কোটি ২০ লাখ ৯ হাজার ১০১ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top