মে মাসে ১৮ দিনই পতন: দুশ্চিন্তায় বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের শেয়ারবাজার নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে হতাশ বিরাজ করছে। গত মে মাসে লেনদেনের ২১ দিনের মধ্যে ১৮ দিনেই বিক্রয় চাপে সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়। এতে শেয়ার দাম ক্রমাগত কমতে থাকায় ক্ষতির মুখে পড়ছে বিনিয়োগকারীরা।

মে মাসে ১৮ দিনে পতনে ডিএসইর সূচক কমেছে ৫১২ পয়েন্টে। মাত্র তিন কার্যদিবস সূচক ঊর্ধ্বমুখী ছিল। আর এ তিনদিনে সূচক বেড়েছে ১১৭ পয়েন্ট। সেই হিসেবে মে মাসজুড়ে ডিএসই থেকে সূচক কমে গেছে ৩৯৫ পয়েন্ট। যা ডিএসইর অন্যান্য মাস অনুযায়ী গত মাসে সবচেয়ে বেশি পতন হয়েছে। এদিকে, মে মাসের পতনে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে প্রায় সাড়ে ১৮ হাজার কোটি টাকা।

এ প্রসঙ্গে একাধিক মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারেজ হাউজের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বললে জানা যায়, বাজারে টানা পতনের কারণে নতুন পুরোনো সব বিনিয়োগকারী পুঁজি হারিয়ে এখন দিশাহারা। বাজার নিয়ে তারা এখন বেশ চিন্তিত। সবমিলিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

গত এক মাসের তথ্য পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মে মাসে প্রথম ১১ কার্যদিবস, অর্থাৎ ৩ থেকে ২০ মে পর্যন্ত পতন হয়। যদিও গত ২৬ এপ্রিল থেকে একটানা পতনের মুখে পড়ে বাজার। এক দিন উত্থান, অর্থাৎ ২১ মে উত্থানের পর আবারও দুই দিন পতন ঘটে। ২৪ ও ২৭ মে উত্থান হলেও পরবর্তী সময়ে পতন ঘটে। এমনকি মে মোসের শেষের দিনও শেয়ারবাজারে সবচেয়ে বড় পতন ঘটেছে। ওইদিন শেয়ারাবাজারে সূচক কমে ৫১ পয়েন্টে।

দেখা যায়, গত ৩ মে মাসে ডিএসইর বড্র ইনডেক্স ছিল ৫ হাজার ৬৯৮ পয়েন্ট যা ৩১ মে অবস্থান করে ৫ হাজার ৩৪৩ পয়েন্ট। সে হিসেবে  বড্র ইনডেক্স কমেছে ৩৯৫ পয়েন্ট। এছাড়া ৩ মে ডিএসইর শরিয়াহ সূচক ছিল ১ হাজার ৩১৮ পয়েন্ট যা ৩১ মে অবস্থান করে ১২৩৮ পয়েন্ট। সে হিসেবে শরিয়াহ সূচক কমেছে ৮৬ পয়েন্ট। আর ৩ মে ডিএসই৩০ সূচক ছিল ২ হাজার ২১৮ পয়েন্টে যা ৩১ মে অবস্থান করে ১ হাজার ৯৭৪ পয়েন্টে। সে হিসেবে ডিএসই ৩০ সূচক কমেছে ১৬৯ পয়েন্ট।

এদিকে মে মাসজুড়েই শেয়ারবাজারে বড় পতনে বাজার থেকে মূলধনও বেরিয়েছে অনেক। প্রথম কার্যদিবস ৩ মে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৩৪২ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। সর্বশেষ কার্যদিবস গত বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৩১ মে বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৭৯ হাজার ৯৫৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। সেই হিসেবে বাজার মূলধন কমেছে ১৮ হাজার ৩৮২ কোটি ৮৭ লাখ টাকা বা ৪.৬১ শতাংশ।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top