ইতিহাস গড়ল মেয়েরা: দেশবাসীরকে ঈদ উপহার এশিয়া কাপ

শেয়ারাবাজার রিপোর্ট: বাংলোদেশের সকলকে এ ঈদে এশিয়া কাপ উপহার দিলেন বাংলাদেশ ক্রিক্রেটের নারী দল। কুয়ালালামপুরে মেয়েদের এশিয়া কাপ ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশ নারী দল ইতিহাস সৃষ্টি করলো। প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপ জিতে ইতিহাস গড়লো সালমারা। যে কাজটি কয়েক যুগ ধরে বাংলাদেশের তারকা পুরুষ ক্রিকেটাররা পারেননি, সেই কাজটিই আজ করে ফেলেছেন দেশের প্রমীলা ক্রিকেটাররা। জিতে নিয়েছেন বড় কোনো শিরোপা। অন্তিম লড়াইয়ে ভারতকে হারিয়ে নারীরাই বাংলাদেশকে দিলেন প্রথমবারের মতো বড় কোনো শিরোপা জয়ের স্বাদ। উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে বাংলাদেশ জিতেছে ৩ উইকেটে।

দ্বি-পাক্ষিক সিরিজের বাইরে প্রথম কোনো ট্রফি জয় করলো বাংলাদেশ ক্রিক্রেটের নারী দল। এর আগে কুয়ালালামপুরের কিনরারা একাডেমিতে এশিয়া কাপের ফাইনালে টসে জিতে ভারতীয় মেয়েদের ব্যাটিংয়ে পাঠান বাংলাদেশ অধিনায়ক সালমা খাতুন।

টসে জিতে বোলিংয়ে নেমে চতুর্থ ওভারেই ভারতীয় ওপেনার স্মৃতি মন্দনাকে (৭) রানআউট করেন সালমা। ভারতের রানের চাকাও শুরুতে ভালোই আটকে রাখে বাংলাদেশ। প্রথম ৫ ওভারের মধ্যে ২৩টি বল ‘ডট’ দিয়েছে বোলারেরা। রান তোলার চাপে পড়ে সপ্তম ওভারে দীপ্তি শর্মাকেও (৪) হারায় ভারত। তাঁকে সরাসরি বোল্ড করেন জাহানারা। ভারতের স্কোর তখন ৬.৪ ওভারে ২ উইকেটে ২৬। এখান থেকে ৬ রানের ব্যবধানে ভারতের আরও ২টি উইকেট তুলে নিয়েছে মেয়েরা। সাত, আট ও নয়—এই তিন ওভারে ৩ উইকেট হারায় ভারত।

দীপ্তি ফিরে যাওয়ার পরের ওভারেই ওপেনার মিতালি রাজকে (১১) তুলে নেন খাদিজা। নবম ওভারে আনজুয়া পাতিল (৩) আউট হয়েছেন নিজের কৃতকর্মের মাশুল গোনে। ৮.২ ওভারে রান নিতে গিয়ে নিজের প্রান্তে ফেরার সময় উইকেটরক্ষকের থ্রো দেখে তিনি উইকেট ঢেকে দৌড়ান। সালমারা ‘অবস্ট্রাক্টিং দ্য ফিল্ড’ আউটের আবেদন করলে টেলিভিশন রিপ্লে দেখে আউট ঘোষণা করেন থার্ড আম্পায়ার। ১৩তম ওভারে ভেদা কৃঞ্চমূর্তিকেও তুলে নেন অধিনায়ক সালমা। তাঁকে বোল্ড আউট করেন এই স্পিনার।

১৫তম ওভারে একাই ২ উইকেট তুলে নেন রুমানা আহমেদ। দ্বিতীয় বলে তাঁকে ডাউন দ্য উইকেট এসে উড়িয়ে মারতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন তানিয়া ভাটিয়া (৩)। তিন বল পর শিখা পাণ্ডেকে (১) শামীমা সুলতানার ক্যাচে পরিণত করেন রুমানা। খাদিজার করা শেষ ওভারের প্রথম বলে রানআউটের শিকার হন ভারতের পেসার ঝুলন গোস্বামী। সতীর্থরা এক প্রান্তে তেমন ভালো করতে না পারলেও দলের ইনিংসটা বলতে গেলে একাই টেনেছেন ভারতের অধিনায়ক হারমনপ্রীত কাউর। ৪১ বলে ৫৬ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে সফল খাদিজা ও রুমানা। দুজনেই ২টি করে উইকেট নেন। তবে ভারতের রানের চাকা আটকে রাখায় দারুণ অবদান রেখেছেন নাহিদা আক্তার ও সালমা খাতুন। ১ উইকেট নেওয়া সালমা ১৩টি ‘ডট’ দিয়েছেন। নাহিদা উইকেট না পেলেও ১৬টি ‘ডট’ দিয়েছেন।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top