অবশেষে সরে দাঁড়ালেন ট্রাম্প

শেয়ারবাজার ডেস্ক: অভিবাসন প্রত্যাশীদের অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে শিশুদের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন করার প্রক্রিয়া থেকে শেষ পর্যন্ত সরে দাড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

গতকাল বুধবার ‘পরিবারকে একত্রিত রাখা’র নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন ট্রাম্প। ‘জিরো টলারেন্স’নীতির আওতায় বাবা-মার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়া শিশুদের কান্নার ছবি দেখে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে দাবি করেন তিনি। ট্রাম্প বলেন, ‘পরিবারকে এক রাখতে চাই আমরা। আলাদা রাখার দৃশ্য আমার ভালো লাগেনি।’

এদিকে তার স্ত্রী মেলানিয়া ও মেয়ে ইভাঙ্কা তার ওপর এই নীতি থেকে সরে আসার জন্য চাপ দিচ্ছিল বলে উল্লেখ করেন মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় হৃদয়সম্পন্ন যেকোনো মানুষ বিষয়টি অনুভব করবে।’

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন বলা হয়,অভিবাসন প্রত্যাশী শিশুদের তাদের পরিবার থেকে আলাদা করার পর সাবেক ও বর্তমান ফার্স্ট লেডি, রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেট নেতাসহ নির্বিশেষে ট্রাম্পের সমালোচনা করেন। এছাড়া সাধারণ জনগণ ও নিজ দলেরই রাজনীতিবিদদের প্রবল চাপ ও প্রতিরোধের মুখে পড়েন ট্রাম্প। এদিকে দেশের বাইরেও ক্যাথলিক ধর্মগুরু পোপ ও কানাডীয় প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোসহ অনেকেই সমালোচনা করেন ট্রাম্পের। আর তাই এ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হন ট্রাম্প।

অভিবাসন নিয়ে নিজের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা পুনর্ব্যক্ত করেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশে ছিল-

> যতদিন মামলা চলবে আটককৃত অভিবাসন প্রত্যাশী পরিবারগুলো একসঙ্গে থাকতে পারবে।

> অভিবাসন মামলার ক্ষেত্রে পরিবারকে একসঙ্গেই রাখা হবে।

> শিশুরা কতদিন আটক থাকবেন সেই বিষয়ে আদালতের রায়ের সংস্কারের অনুরোধ করা হয়েছে।

রিপাবলিকান কংগ্রেস নেতা পল রায়ান বলেছেন, তারা বৃহস্পতিবার ভোটের মাধ্যমে একটি আইন পাশ করবেন। এতে করে পরিবার একসঙ্গে থাকতে পারবে। তবে এর বিস্তারিত কিছু বলেননি তিনি।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top