আঁচিল দূর করতে কলার খোসা!

শেয়ারবাজার ডেস্ক: প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি বিভিন্ন ক্রিম‚ প্যাক‚ মাস্ক যা আপনি নিজেই ঘরে বানিয়ে নিতে পারবেন তা আজকাল খুবই জনপ্রিয় হয়েছে। এগুলোর দাম অনেক কম‚ কেমিক্যাল ফ্রি এবং ত্বকের জন্য ভালো। বাজারে যেসব বিভিন্ন ক্রিম বা প্যাক পাওয়া যায় তাতে কেমিক্যাল থাকে। যা পরিশেষে আপনার ত্বকের ক্ষতি করে। তাই ঘরে তৈরি প্রাকৃতিক উপাদানের ওপর নির্ভর করাই সব থেকে ভালো। এমনি একটা উপাদান হল কলার খোসা-

কলার খোসার অনেক গুণ আছে। এর সাহায্য আপনি মুখের কালো ছোপ‚ মেচেতা এবং বলিরেখাকে বাই বাই করে দিতে পারেন। কলার খোসায় একধরণের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট পাওয়া যায় যার নাম লুতেইন। এছাড়াও এতে ভিটামিন A আছে। এই দুই মিলে এরা ত্বককে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মির হাত থেকে বাঁচায়। এছাড়াও কলার খোসায় উচ্চ পরিমাণে ফ্যাটি অ্যাসিড আছে যা ত্বককে আর্দ্রতা যোগায়।

কলার খোসা ব্যবহার করলে আপনার মুখের কালো ছোপ‚ মেচেতা এবং বলিরেখা দূর হবে। এতে ভিটামিন A‚ B‚ C আর E আছে এছাড়াও এতে পটাসিয়াম‚ জিঙ্ক‚ আয়রন আর ম্যাঙ্গানিজ আছে যা অনেক দিনের পুরনো কালো ছোপও হাল্কা করতে সাহায্য করে। কলার খোসা ত্বককে ভেতর থেকে আর্দ্রতা জোগায়। তাই যদি নরম দাগহীন ত্বক চান তাহলে তাড়াতাড়ি কলার খোসা ব্যবহার করা আরম্ভ করুন।

কীভাবে কলার খোসা ব্যবহার করবেন-

– প্রথমে ত্বক ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। তবে অ্যাকনে থাকলে ত্বক জোরেজোরে স্ক্রাব করবেন না।

– একটা পাকা কলা নিয়ে খোসা ছাড়িয়ে তা ছোট টুকরো করে নিন। এরপর সরাসরি কলার খোসার ভেতরের অংশ ত্বকে লাগিয়ে গোল করে ম্যাসাজ করুন। ১০-১৫ মিনিট ধরে ম্যাসাজ করুন।

– সাথে সাথেই মুখ ধুয়ে নেবেন না। অন্তত ৪-৫ ঘন্টা রেখে দিন। ঘুমোতে যাওয়ার আগে এটা করতে পারেন। সকালে উঠে মুখ ধুয়ে নিন। মুখ সব সময় ঠান্ডা জল বা খুব হালকা গরম জল দিয়ে ধোবেন।

– রোজ এটা করতে পারলে সব থেকে ভালো হয়। কলার খোসায় বিভিন্ন ভিটামিন আর মিনারেল আছে তাই এটা দিয়ে ত্বকের অন্য সমস্যাও ঠিক করা যায়।

– আঁচিলের ওপর যদি রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে কলার খোসা লাগিয়ে রাখেন তাহলে ধীরে ধীরে আঁচিল ভ্যানিশ হয়ে যাবে।

– এতে যেহেতু প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার আছে তাই এটা দিয়ে একজিমা আর সোরিয়াসিস ঠিক করা যায়। কলার খোসায় উচ্চ পরিমাণে পটাসিয়াম আছে। রোদে জ্বলে যাওয়া ত্বক ঠান্ডা করতে এটার জুড়ি নেই।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top