৯ দিন গুহায় আটক ১২ শিশু বলল ‘আমরা বেঁচে’! (ভিডিও)

শেয়ারবাজার ডেস্ক: বন্যাবিধ্বস্ত থাইল্যান্ডের একটি গভীর গুহায় কোচ সহ আটকে পড়ে ১২ শিশুর ফুটবল টিম৷ ২৩ জুন পাটায়া সমুদ্রতটের আশেপাশে একটি গুহায় খুদে টিম নিয়ে ঘুরতে গিয়েছিলেন কোচ৷ টানা ৯ দিন পর ১২ শিশুকে জীবিত দেখে উদ্ধারকারীরা কেঁদে ফেললেন৷

অসম্ভব কঠিন সেই মিশন মনের জোড়েই সম্পূর্ণ করল উদ্ধারকারী দল৷ গুহার অনেকটা গভীরে গিয়ে ফুটবলারদের ব্যাগের হদিস মেলে৷ সেই পথ ধরেই কোচ ও খুদে ফুটবলারদের কাছে পৌঁছন সম্ভব হয়৷ উদ্ধাকারী দলের ডাকে সারা দেয় খুদেরা৷ ক্ষীণ গলায় তারা জানায়-‘আমরা বেঁচে’৷ সঙ্গে সঙ্গেই উদ্ধারকারী দল তাদের মনের জোর ধরে রাথার কথা বলেন৷ উঁচু পাথর পার হওয়ার পর উদ্ধার হয় কোচ সহ শিশুরা৷

থাইল্যান্ড,আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার যৌথ উদ্যোগে এই উদ্ধারকাজ হয়৷ প্রথমে গুহার কাছে উদ্ধারকারী দল পৌঁছলেও, গুহার মুখেই তারা আটকে পড়ে৷ জলমগ্ন গুহায় ভেতরে প্রবেশ করাই ছিল কঠিন৷ এভাবেই গোটা একদিন গুহার বাইরে থাকতে হয় উদ্ধারকারী দলকে৷ বৃষ্টি কমলে গুহা থেকে জল বের করার কাজ শুরু হয়৷ জল কমার পরও শুরুতে এক বুক জল পার হতে হয় উদ্ধারকারী দলকে৷ দড়ি দিয়ে কিছুটা পথ যাওয়ার পর বাচ্চাদের ব্যাগ দেখতে পান তাঁরা৷ বিপজ্জনক পাথরের চাঁই পেরিয়ে কোচ সহ শিশুদের উদ্ধার করা হয়৷

গোটা দেশ উদ্ধারকাজের দিকে চেয়েছিল৷ অবশেষে সাফল্যা৷ তবে, এই ঘটনার পর থাইল্যান্ড প্রশাসনের তরফে জানান হয়েছে, শিশুরা উদ্ধার হোলেও তাদের দীর্ঘ চিকিৎসার মধ্যে থাকতে হবে৷ শারীরিক ও মানসিক ভাবে তারা পুরোপুরি দুর্বল৷ উদ্ধারকারী দলও জানাচ্ছে, গুহায় ঢোকা যতটা কঠিন, উদ্ধার হওয়া ১৩ জনকে নিয়ে বেরনো তার চেয়েও কঠিন ছিল৷

থাইল্যান্ডের ল্যাবিরিন্থ গুহায় ১৩ জন আটকে যায়৷ থাইল্যান্ডের বিখ্যাত গুহাগুলির মধ্যে এটি অন্যতম ও সবচেয়ে দীর্ঘ৷ পর্যটন দফতর জানাচ্ছে, গুহার প্রথম কয়েক কিলোমিটার পথ চলার মত৷ তারপরেই উঁচু-নীচু পাথরে ঘেরা৷ বর্ষা না হলে যা ঘোরা যায়৷ কিন্তু, অতি বৃষ্টিতে গুহার প্রবেশমুখই মারাত্মক আকার নেয়৷ প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কেন গুহা প্রবেশে সতর্কতা জারি হল না? বৃষ্টির পূর্বাভাস পেয়েও কেন রেড অ্যালার্ট দেওয়া হল না? গোটা ঘটনায় নিজেদের গাফিলতি স্বীকার করেছে থাইল্যান্ড পর্যটন দফতর৷ আপাতত, ১৩ জন জীবিত উদ্ধার হওয়ায় স্বস্তিতে থাইল্যান্ড৷

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top