দাম দিয়েও মিলছে না ৭ কোম্পানির শেয়ার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) তালিকাভূক্ত ৭ কোম্পানি শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘরে শেয়ার বিক্রয় করতে বিক্রেতার কোন দেখা পাওয়া যায়নি। এর ফলে লেনদেনের দেড় ঘন্টায় কোম্পানিগুলো বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, দুপুর ১২টার দিকে পেনিনসুলা চিটাগাংয়ের ক্রেতার ঘরে ৮৬ লাখ ৭৪ হাজার ২১৬টি শেয়ার ২৮.৬০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এমনকি কোম্পানিটি আজ সার্কিট ব্রেকার স্পর্শ করেছে। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ৩ লাখ ৭৯ হাজার ৭১৭টি শেয়ার ১৯০ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ১০ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৮.৬০ টাকায় লেনদেন হয়।

সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের ক্রেতার ঘরে ২ লাখ ৪৪ হাজার ৪৫৩টি শেয়ার ৭০.৫০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ১৪ লাখ ১৭ হাজার ৬৮৮টি শেয়ার ১ হাজার ৩৫৯ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯৮ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৭০.৫০ টাকায় লেনদেন হয়।

লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ক্রেতার ঘরে ৩ লাখ ৯৮ হাজার ৮৫১টি শেয়ার ১৪৫.৭০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ২ লাখ ১ হাজার ২৩৩টি শেয়ার ২২৪ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯৬ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ১৪৫.৭০ টাকায় লেনদেন হয়।

নাহি অ্যালুমিনিয়ামের ক্রেতার ঘরে ৩ লাখ ৩৭ হাজার ৪২৯টি শেয়ার ৫১.৯০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ১৭ লাখ ৭৭ হাজার ৭০টি শেয়ার ১ হাজার ৩৪২ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯৫ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৫১.৯০ টাকায় লেনদেন হয়।

আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের ক্রেতার ঘরে ৮৭ হাজার ৪২৪টি শেয়ার ১০১ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ৯ লাখ ৭৩ হাজার ৫৬৬টি শেয়ার ১ হাজার ৯৭৩ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯০ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ১০১ টাকায় লেনদেন হয়।

বেঙ্গল উন্ডসোরের ক্রেতার ঘরে ৪ লাখ ৪২ হাজার ৬৩২টি শেয়ার ৩৫.৮০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ৩ লাখ ৮ হাজার ২৫৯টি শেয়ার ২৮৬ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৮১ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৩৫.৮০ টাকায় লেনদেন হয়।

এ্যাপোলো ইস্পাতের ক্রেতার ঘরে ১০ লাখ ৪৪ হাজার ১৫৪টি শেয়ার ১৩.৭০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময়ে কোম্পানির ২০ লাখ ৫০ হাজার৬৫৪টি শেয়ার ১ হাজার ১২ বার লেনদেন হয়। এ সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৬০ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ১৩.৭০ টাকায় লেনদেন হয়।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top