১৭টি আইপিও ও ৪৫৫০ কোটি টাকা নতুন বিনিয়োগের লক্ষ্য

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: চলতি ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে পুঁজিবাজার থেকে আইপিও, রাইট ইস্যু কিংবা বন্ডের মাধ্যমে ১৭টি কোম্পানির মূলধন উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। একই সঙ্গে পুঁজিবাজারের উন্নয়নে ৪ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা নতুন বিনিয়োগ করবে বলে চুক্তি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ।

আগস্টের প্রথম সপ্তাহে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের ২০১৮-২০১৯ হিসাব বছরের বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তিতে পুঁজিবাজারের উন্নয়নে এসব লক্ষ্যমাত্রা নেয়া হয়। চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন মন্ত্রীপরিষদ সচিব এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব।

চুক্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৮-২০১৯ হিসাব বছরে ১৭টি কোম্পানিকে আইপিও, রাইট, আরপিও এবং বন্ড বা ডিবেঞ্চারের মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে মূলধন উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হবে। এর আগের বছর ২০১৭-২০১৮ হিসাব বছরে ১৬টি কোম্পানি ও ২০১৬-২০১৭ হিসাব বছরে ১১টি কোম্পানিকে মূলধন উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল।

বিএসইসি সূত্রে জানা যায়, চলতি হিসাব বছরে ইতিমধ্যে দুটি কোম্পানি- রানার অটোমোবাইলকে আইপিও’র মাধ্যমে ১০০ কোটি টাকা এবং বন্ডের মাধ্যমে সিটি ব্যাংককে ৭০০ কোটি টাকা উত্তোলনের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

এদিকে বিগত বছরগুলোর মতো এবারও পুঁজিবাজারের উন্নয়নে নতুন করে ৪ হাজার ৫৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা নেয়া হয়েছে। এর আগের বছর পুঁজিবাজারে ৪ হাজার ৫১০ কোটি টাকা এবং ২০১৬-২০১৭ হিসাব বছরে ৪ হাজার কোটি টাকার নতুন বিনিয়োগ করা হয়েছিল।

পুঁজিবাজারের সমস্যা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শেয়ারবাজারে ট্রেড পরবর্তী ক্লিয়ারিং এন্ড সেটেলমেন্টে বিলম্ব এবং প্রশিক্ষিত বিনিয়োগকারীর অভাব রয়েছে।

তাই ২৭ জুন ২০১৯ এর মধ্যে স্টক এক্সচেঞ্জের পৃথক ক্লিয়ারিং ও সেটেলমেন্ট কোম্পানি গঠন করার লক্ষ্যমাত্রা নেয়া হয়েছে।এছাড়া ২০ জুনের মধ্যে স্বল্প মূলধনী কোম্পানির ট্রেড প্লাটফর্ম এবং ১৪ হাজার ৫০০জনকে বিনিয়োগ শিক্ষা দেয়া হবে।

প্রতিবেদনে বিগত তিন বছরের অর্জনে বলা হয়েছে, পিুঁজিবাজারে বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য ২৩টি কোম্পানিকে আইপিও; ১০টি কোম্পানিকে রাইট ইস্যু; ৬১টি কোম্পানিকে বন্ড ও ডিবেঞ্চার এবং ২০টি কোম্পানিকে প্রেফারেন্স শেয়ার ইস্যু সহ ৩৮০টি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি ও ২৭২টি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিকে মোট ৬৭ হাজার ১৯ কোটি ৯১ লাখ টাকা মূলধন তোলার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

আপনার মন্তব্য

One Comment;

  1. N said:

    Your comment… energy pack power 2017 er 15 octobor road show korse kinto tar por kono khobor nai eta kobe ashbe eta niye ekta news koren.

Leave a Reply to N Cancel reply

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top