সাপ্তাহিক বাজার: লেনদেন কমেছে সাড়ে ৪‘শ কোটি টাকা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতন ঘটেছে। শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক কিছুটা বাড়লেও অন্যান্য সব ধরনের সূচক কমেছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে ৩দিনই বেড়েছে সূচক। বাকি দুই কার্যদিবস কমলেও এর মাত্রা ছিলো অত্যাধিক। এরই ধারাবাহিকতায় দেশের উভয় শেয়ারবাজারে প্রায় সব ধরনের সূচক কমেছে। এদিকে সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমানও কিছুটা কমেছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪ হাজার ৩৯০ কোটি ৯০ লাখ ৬০ হাজার ৭২১ টাকা।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহশেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে ০.৪০ শতাংশ বা ২১.৪৮ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ০.১২ শতাংশ বা ২.৩১ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ০.৪৫ শতাংশ বা ৫.৭১ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৪৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩১টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৯৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ৪ হাজার ৩৯০ কোটি ৯০ লাখ ৬০ হাজার ৭২১ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৪ হাজার ৮৫০ কোটি ২২ লাখ ৫৪ হাজার ১১০ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ৪৫৯ কোটি ৩১ লাখ ৯৩ হাজার ৩৮৯ টাকা ৯.৪৭ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৫.৪৩ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৭.০৪ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৬.৩৭ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ১.১৫ শতাংশ।

সপ্তাহশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৪৫.৯৬ পয়েন্ট বা ০.৪৫৯৯ শতাংশ কমে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৯৪৮ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাত বদল হওয়ার ২৯১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১১৫টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৬৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৩টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ৩৫৫ কোটি ৬৬ লাখ ১৪ হাজার ৮৭৮ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top