সক্রিয় হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ধীরে ধীরে সক্রিয় হতে চলেছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা। এতোদিন মুষ্ঠিমেয় কিছু শেয়ারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করা হলেও এখন মৌলভিত্তি সম্পন্ন শেয়ারগুলোতে বিনিয়োগকারীদের ঝোঁক বাড়ছে।

আজ সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতন হলেও লেনদেন সাড়ে ৯শ কোটি ছাড়িয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরুতে উত্থান থাকলেও ২০ মিনিট পর সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। তবে একবার ঘুঁড়ে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও ব্যাহত হয় বাজার। বুধবার সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৯৫৪ কোটি ৪৩ লাখ ৯১ হাজার টাকা।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫৩১৯ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১২৬৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৮৯৫ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১২৮টির, কমেছে ১৬৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৯৫৪ কোটি ৪৩ লাখ ৯১ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ১২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫৩৩৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১২৬৬ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১৯০২ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৭১৬ কোটি ৬১ লাখ ৫৩ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২৩৭ কোটি ৮২ লাখ ৩৮ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৯ হাজার ৯২৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫৫টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১১৬টির, কমেছে ১১০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৯টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৫৫ কোটি ৭৪ লাখ ১৮ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

 

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top