ধৈর্যের সীমা অতিক্রম করলেই ব্যবস্থা: গুলিস্তানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

শেয়ারবাজার ডেস্ক: নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সড়ক থেকে তুলতে এক সপ্তাহ পর কঠোর হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বলেছেন, ‘আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনী ধৈর্যের পরিচয় দিচ্ছে।’

‘তার মানে এই নয় যে তারা অরাজকতা করতেই থাকবেন, আর আমরা দৃশ্য দেখতেই থাকব। মোটেই না, আমাদেরও ধৈর্যের সীমা রয়েছে। সেটা অতিক্রম করলেই কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।’

রবিবার (৫ আগস্ট) গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট দেশব্যাপী ট্রাফিক সপ্তাহ উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকের এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

‘শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে যা ঘটেনি তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে’ জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘একজন অভিনেত্রী কীভাবে অভিনয় করেছেন, কেঁদেছেন তা সবাই দেখেছেন। মূলত তার উদ্দেশ্য ছিল আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানো।’

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল আরও বলেন, ‘একজনকে দায়িত্বশীল নেতা বলে জানি। তিনি ঢাকায় নামতে বলেন, উদ্দেশ্য ভালো ছিল না। ছেলেরা ব্যাগে বইয়ের পরিবর্তে পাথর নিয়ে নেমেছিল। রাতারাতি হাজার স্কুল ড্রেস বানানো হলো। এ সব ভিন্ন উদ্দেশ্যের জন্য করা হয়েছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি, তাদের দাবি সম্পর্কে জানতে চেয়েছি। অথচ তারা কিছু বলতে পারে না। নয় দফার সবগুলোই পূরণ করা হয়েছে।’

সড়ক পরিবহন আইনটি আগামীকাল সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে উঠবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট স্কুল ও কলেজের সামনে আন্ডারপাস তৈরিতে এরই মধ্যে সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।’

এর আগে গতকাল শনিবার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাফিক সপ্তাহ শুরু হওয়ার কথা জানান ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এদিন তিনি বলেন, ‘দেশব্যাপী রবিবার থেকে শুরু হবে ট্রাফিক সপ্তাহ। এ সময় গাড়ির চালকের লাইসেন্স, ফিটনেসবিহীন গাড়ি আটকসহ ট্রাফিক আইনে যা যা করণীয়, সব করা হবে। এ ক্ষেত্রে স্কাউট সদস্যরা ছাড়াও পুলিশের সঙ্গে কাজে সহায়তা করতে পারবে ছাত্রছাত্রীরাও।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top