ডি-লিষ্টিংয়ের তালিকায় যোগ হলো আরো দুই কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: টানা ৫ বছর ধরে বিনিয়োগকারীদের কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড না দেওয়ার তালিকায় যোগ হলো আরো দুই কোম্পানি। এগুলো হলো: সোনারগাঁও টেক্সটাইল লিমিটেড এবং ইনফরমেশন সার্ভিস নেটওয়ার্ক লিমিটেড। এ দুই কোম্পানিকেও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিষ্টিং) রেগুলেশন,২০১৫ এর ৫১ (১) (এ) ধারায় রিভিউ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (লিষ্টিং) রেগুলেশন,২০১৫ এর ৫১ (১) (এ) বলা হয়েছে, যদি কোনো কোম্পানি তার সর্বশেষ ডিভিডেন্ড দেওয়ার পর ৫ বছর ধরে ডিভিডেন্ড দিতে ব্যর্থ হয় তাহলে ডিএসই চাইলে কোম্পানিকে ডি-লিষ্টিং করতে পারে। ইতিমধ্যে এই ধারায় আরো ১৩ কোম্পানিকে রিভিউ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই। সবমিলিয়ে তালিকাচ্যুতির তালিকায় কোম্পানির সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৫টিতে। কোম্পানিগুলো হলো: বেক্সিমকো সিনথেটিকস, দুলামিয়া কটন, আইসিবি ইসলামী ব্যাংক, ইমাম বাটন, জুট স্পিনার্স, কে অ্যান্ড কিউ (বাংলাদেশ) লিমিটেড, মেঘনা কনডেন্সড মিল্ক ইন্ডাষ্ট্রিজ, মেঘনা পেট ইন্ডাষ্ট্রিজ, সমতা লেদার কমপ্লেক্স , সাভার রিফ্যাক্টরীজ, শাইনপুকুর সিরামিকস, শ্যামপুর সুগার মিলস এবং জিলবাংলা সুগার মিলস লিমিটেড, সোনারগাঁও টেক্সটাইল এবং ইনফরমেশন সার্ভিস নেটওয়ার্ক।

এ ব্যাপারে ডিএসই’র একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, যেসব কোম্পানি ৫ বছরের বেশি সময় ধরে কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড দিচ্ছে না সেগুলোকে তদন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই। এসব কোম্পানির বর্তমান অবস্থা, ভবিষ্যত সম্ভাবনা ইত্যাদি বিবেচনায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবে ডিএসই। যদি কোনো কোম্পানির স্টক এক্সচেঞ্জে রাখার পসিবিলিটি না থাকে সেক্ষেত্রে সে কোম্পানিকে ডি-লিষ্টিং করতে হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, সোনারগাঁও টেক্সটাইল বিগত ৫ বছর ধরে কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেনি। ১৯৯৫ সালে কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ইনফরমেশন সার্ভিস নেটওয়ার্ক বিগত ৫ বছর ধরে কোনো প্রকার ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেনি। ২০০২ সালে কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top