গুজব ছড়িয়ে লাখ লাখ শেয়ার হাতিয়ে নিলো কারা?

পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স লি: কে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্বার্থ নিশি মহল নো ডিভিডেন্ড করবে এমন গুজব ছড়িয়ে কম দামে শেয়ার হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ধোকা দিয়ে শেয়ার হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে একটি অসাধু মহল।
ডিএসই অনুসন্ধানে দেখা যায়, ০১/০৮/১৮ থেকে ০৭/০৮/১৮ইং এর মধ্যে মাত্র চার কার্যদিবস ব্যবধানে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৪০.৪০ টাকা থেকে কমে ২৯.৮০ টাকায় লেনদেন শেষ করে (অর্থাৎ ১০.৬০ টাকা বা ৩৬ শতাংশ দর হারায় কোম্পানিটি )।
যেখানে কোন কোম্পানির শেয়ার দর ১০% বাড়লে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষ দরবৃদ্ধির কারণ জানতে চায় যে এর নেপথ্যে কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য রয়েছে কিনা। সেখানে ৩৬% কমলে কেনো নয়। পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স লি: এর মাত্র চার কার্যদিবস ব্যবধানে ১০.৬০ টাকা শেয়ারের দর কমার কারন অনুসন্ধান করা জরুরি।
আগামী ১৩ আগস্ট দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হবে। কোম্পানিটি ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত অর্থবছরের জন্য ২০ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছিল। এর আগে ২০১২ সালে কোম্পানিটি সর্বশেষ ৮ শতাংশ স্টক ডিভিডেন্ড প্রদান করে। তারপর বিগত তিন বছর ধরে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের কোনো ডিভিডেন্ড দিতে পারেনি। সে কোম্পানি ১ বছর ব্যবধানে কি ভাবে নো ডিভিডেন্ড দিবে?
এছাড়া গত বছরের চেয়ে পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের অবস্থা ভালো। যেখানে অন্য লাইফ গুলো জেডের বদমান থেকে মুক্ত হতে যেমন সান লাইফ ইন্সুরেন্স ২% দিলো সেখানে পদ্মা লাইফ নো ডিভিডেন্ড ঘোষণা করার কোনো যৌক্তিক কারণ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।
বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছে অনুরোধ, যারা এই রকম ভিত্তিহীন গুজব ছড়াছে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হোক।
লেখক: আকাশ আহম্মেদ মামুন,ফেনী।
শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top