সূচকের বৃদ্ধিতে ঢাকা পড়ে আছে শেয়ারের দরপতন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ২৪ পয়েন্ট সূচক বেড়েছিল। বিষয়টি প্রাথমিকভাবে ইতিবাচকভাবে দেখলেও ভেতরগত দিক থেকে নেতিবাচক ছিলো। কারণ বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দরপতন হয়েছিল। ঠিক গতকালকের মতো আজো একই ঘটনা ঘটেছে। সূচকের ১ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেলেও গতকালকের চেয়ে বেশি কোম্পানির শেয়ারের দরপতন হয়েছে। অর্থাৎ সূচকের বৃদ্ধিতে বাজারকে ইতিবাচক দেখলেও ভেতর দিক থেকে বাজারে নেতিবাচক প্রভাব চলছে।

আজ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে লেনদেনের শুরুতে উত্থান থাকলেও প্রথম ঘন্টা পর সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে থাকে সূচক। তবে শেষ দিকে ব্যাংক খাতের ক্রয় চাপে উত্থানে ফিরে বাজার। শেষবেলায় সূচক কিছুটা বাড়লেও কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৭০৩ কোটি ৯৩ লাখ ৩ হাজার টাকা।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৫৪০৭ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১২৪৫ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৮৯৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৩৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৩টির, কমেছে ১৭০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৫টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৭০৩ কোটি ৯৩ লাখ ৩ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ২৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৫৪০৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১২৫১ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৯০৫ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৭২৪ কোটি ৪৪ লাখ ২৭ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২০ কোটি ৫১ লাখ ২৪ হাজার টাকা।

এদিকে, দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ১৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০ হাজার ৬৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৫০টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৩টির, কমেছে ১১৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৪০ কোটি ৯ লাখ ১৩ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top