অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্পটে ৫ কোম্পানি: যেভাবে তাদের শেয়ার লেনদেন করবেন

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: শেয়ার দর বৃদ্ধিতে কারসাজি থাকায় ৫ কোম্পানির শেয়ার অনির্দিষ্টকালের জন্য স্পট মার্কেটে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বৃহস্পতিবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিএসইসির নির্বাহি পরিচালক ও মূখপাত্র মো: সাইফুর রহমান এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আগামীকাল রোববার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

কোম্পানিগুলো হচ্ছে- মুন্নু সিরামিক, কে অ্যান্ড কিউ, আজিজ পাইপস, স্টাইলক্রাফট ও ড্রাগণ সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং।

স্পট ট্রেড (Spot trade)। স্পট ট্রেডের ক্ষেত্রে মাত্র ১দিনে A,B,G, N গ্রুপের শেয়ার/টাকা আপনার হিসাবে স্থানান্তর হয় এবং z-গ্রুপের শেয়ার/টাকা ৩দিনে আপনার হিসাবে স্থানান্তর হয়।

তাহলে আসুন দেখি spot trade-কী? অনেকদিন যাবৎ এ ব্যবসা করছেন এমন অনেকেও এ বিষয়টি পরিষ্কার না। স্পট মার্কেটে লেনদেনে আগ্রহী শেয়ার বিক্রেতা ব্রোকারেজ হাউজে ট্রেডারের মাধ্যমে অফার দিবেন। এখানে শেয়ার মূল্য মূল মার্কেটের নিয়ম অনুযায়ী নির্ধারিত হবে। এদিকে আগ্রহী ক্রেতা শেয়ার কিনতে চাইলে বিও হিসাবে নগদ টাকা জমা দিয়ে শেয়ার কিনতে পারবেন। মূল মার্কেটে শেয়ার কিংবা টাকা ভবিষ্যতে নিষ্পত্তি হয়। স্পটে ওইদিনই নিষ্পত্তি হয়। অর্থাৎ একদিনেই বিক্রেতা টাকা পেয়ে যাবেন এবং ক্রেতা শেয়ার পাবেন। নগদ টাকায় শেয়ার লেনদেন হওয়ায় স্পট মার্কেটে লেনদেন কম হয়।

নিয়ম অনুযায়ী, দুর্বল মৌলভিত্তির ‘জেড’ শ্রেণিভুক্ত কোম্পানি বাদে অন্য সব শ্রেণির কোম্পানির শেয়ার রেকর্ড ডেটের আগে ২ দিন স্পট মার্কেটে লেনদেন হয়। আর ‘জেড’ শ্রেণির কোম্পানির শেয়ারের বেলায় এ সময় ৯ দিন। শেয়ারের লেনদেন নিষ্পত্তির সুবিধার্থে এ স্পট মার্কেট ব্যবস্থাটি রাখা হয়েছে। মূলত রেকর্ড ডেটের আগে নির্ধারিত সময়ের জন্য সাধারণ বাজার থেকে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলোকে স্পট মার্কেটে স্থানান্তর করা হয়। যাতে রেকর্ড ডেটের দিনে শেয়ারের মালিকানা নির্ধারণ নিয়ে কোনো ধরনের জটিলতা দেখা না দেয়।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/আ

 

আপনার মন্তব্য

*

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top