ডিএসইর অ্যাকাউন্টে যুক্ত হয়েছে চীনা কনসোর্টিয়ামের টাকা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) যুক্ত হয়েছে চীনা কনসোর্টিয়াম শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের ৯৪৫ কোটি টাকা। আজ সোমবার ডিএসইর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এ টাকা জমা হয়েছে বলে জানিয়েছের ডিএসইর এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

তিনি জানান, ডিএসইর শেয়ার পেতে ডিএসইর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে অর্থ পরিশোধ করেছে চীনা কনসোর্টিয়াম শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ।ডিএসইর ১৮০ কোটি শেয়ারের থেকে ৪৫ কোটি শেয়ারের জন্য প্রতিটি ২১ টাকা দরে ৯৪৫ কোটি টাকা দিয়েছে। এর প্রেক্ষিতে আগামীকাল সকাল ১১টায় ডিএসই এক বোর্ড সভা করবে বলে জানান তিনি।

সকালে অনুষ্ঠিত ওই বোর্ড সভায় চীনা কনসোর্টিয়ামের ১ জন প্রতিনিধি উপস্থিত থাকবেন। যিনি পরবর্তীতে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হবেন। বোর্ড সভার মাধ্যমেই শেয়ার হস্তান্তরের সার্বিক কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। এরপর দুপুরে হোটেল প্যা্ন প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে শেয়ার হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হবে।

জানা গেছে, চীনের কনসোর্টিয়াম ডিএসইর প্রতিটি শেয়ারের দাম দিতে চায় ২২ টাকা। তবে শর্তানুযায়ি, ডিএসইর শেয়ারহোল্ডাররা এরইমধ্যে শেয়ারপ্রতি ১ টাকা লভ্যাংশ নেওয়ায়, সমপরিমাণ দর কমে এসেছে। এক্ষেত্রে চীনা কনসোর্টিয়াম ডিএসইর ১৮০ কোটি শেয়ারের ২৫ শতাংশ বা ৪৫ কোটি শেয়ারের জন্য প্রতিটি ২১ টাকা দরে ৯৪৫ কোটি টাকা দেবে।

অন্যদিকে চীনা কনসোর্টিয়াম ডিএসইর কারিগরি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নে ৩০০ কোটিরও বেশি টাকা (৩৭ মিলিয়ন ডলার) ব্যয় করবে। যাতে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হতে মোট ১ হাজার ২৪৫ কোটিরও বেশি টাকা পাবে ডিএসই।

অর্থ পরিশোধ এবং ডিএসইর শেয়ার নিতে চীনা কনসোর্টিয়ামের ১১ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল ঢাকায় এসেছে। এজন্য গত ২৬ আগস্ট বাংলাদেশ ব্যাংক চীনের সাংহাই ও সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জ কনসোর্টিয়ামকে নিটা অ্যাকাউন্ট (বিদেশ থেকে পাঠানো অর্থ টাকায় রূপান্তরের বিশেষ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট) খোলার অনুমতি দেয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের এ অনুমতির বিষয়টি পরের দিন ২৭ আগস্ট ডিএসই থেকে জোটটিকে জানিয়ে দেয়।

এর আগে গত ১৪ মে রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসাবে চীনের দুই শেয়ারবাজার শেনঝেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে ডিএসইর চুক্তি সম্পন্ন হয়।

এর আগে ৩ মে চীনা কনসোর্টিয়ামকে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। আর এই অনুমোদনের জন্য ৩০ এপ্রিল অনুমোদন দেয় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) শেয়ারহোল্ডাররা। একইদিন বিকালে অনুমোদনের জন্য বিএসইসিতে প্রস্তাব জমা দেয় ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ।

শেয়ারবাজারানিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top