আইপিও’র মাধ্যমে ১১ কোম্পানির ঝুলিতে ৫০১ কোটি টাকা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: চলতি ২০১৮ সালে প্রথম ৯ মাসে পুঁজিবাজার থেকে ১১ কোম্পানি প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে ৫০১ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। কোম্পানিগুলো হলো: কুইন সাউথ টেক্সটাইল, অ্যাডভেন্ট ফার্মা, ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং, বসুন্ধরা পেপার, এসকে ট্রিমস, আমান কটন ফাইব্রাস, ভিএফএস থ্রেড ডাইং, এমএল ডাইং, সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালস, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস এবং কাট্টলি টেক্সটাইল লিমিটেড। এই ১১ কোম্পানির মধ্যে বসুন্ধরা পেপার ও আমান কটন বুক বিল্ডিং পদ্ধতির মাধ্যমে ২৮০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। বাকি ৯ কোম্পানি ফিক্সড প্রাইসে ২২১ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, কুইন সাউথ টেক্সটাইল পুঁজিবাজার থেকে ১ কোটি ৫০ লাখ কোটি সাধারণ শেয়ার প্রতিটি ১০ টাকায় ছেড়ে ১৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে।

অ্যাডভেন্ট ফার্মা লিমিটেড বাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করে। কোম্পানিটিকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি শেয়ার ইস্যু করার অনুমোদন দেওয়া হয়।

ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশনকে আইপিওর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করার অনুমোদন দেন বিএসইসি। কোম্পানিটি ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি শেয়ার ছেড়ে বাজার থেকে এ অর্থ উত্তোলন করে।

বসুন্ধরা পেপার মিলস শেয়ারবাজারে বুক বিল্ডিং পদ্ধতির মাধ্যমে ২ কোটি ৬০ লাখ ৪১ হাজার ৬৬৭টি শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে প্রায় ২০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। এর মধ্যে কাট অফ প্রাইস বা ৮০ টাকা দরে ১ কোটি ৫৬ লাখ ২৫ হাজার শেয়ার ইলিজিবল ইনভেস্টরদের কাছে ১২৫ কোটি টাকায় ইস্যু করা হয়। বাকি ১ কোটি ৪ লাখ ১৬ হাজার ৬৬৬টি শেয়ার কাট অফ প্রাইসের ১০ শতাংশ কমে ৭২ টাকা করে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে ৭৪ কোটি ৯৯ লাখ ৯৯ হাজার ৯৫২ টাকায় বিক্রি করা হয়।

এসকে ট্রিমস অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ আইপিওর মাধ্যমে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি শেয়ার ইস্যু করে পুঁজিবাজার থেকে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করে।

আমান কটন ফাইব্রাস লিমিটেড বুক বিল্ডিং পদ্ধতির মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ৮০ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। ৪০ টাকা কাট অফ প্রাইস নির্ধারিত হওয়ায় যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের (ইআই) কাছে ১ কোটি ২৫ লাখ শেয়ার ইস্যু করা হয়। আর কাট অফ প্রাইসের ১০ শতাংশ কমে অর্থাৎ ৩৬ টাকায় ৮৩ লাখ ৩৩ হাজার ৩৩৩টি শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে বিক্রি করা হয়।

ভিএফএস থ্রেড ডাইং লিমিটেড  ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে ২২ কোটি টাকা উত্তোলন করে।

এমএল ডাইং লিমিটেড ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ২ কোটি সাধারণ শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করে।

সিলভা ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি সাধারণ শেয়ার ইস্যু করে ৩০ কোটি টাকা উত্তোলন করে।

ইন্দো বাংলা ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেড ২ কোটি সাধারণ শেয়ার প্রতিটি ১০ টাকায় ২০ কোটি টাকা সংগ্রহ করার প্রক্রিয়ায় রয়েছে।

কাট্টলি টেক্সটাইল লিমিটেডক ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে ৩ কোটি ৪০ লাখ সাধারণ শেয়ার ছেড়ে ৩৪ কোটি টাকা উত্তোলনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top