ভালো থাকুন সেই তুমি’র জনক

ঘুম ভাঙ্গা শহরে কেউ একজন হকার হয়ে রূপালি গিটার এনেছিলেন। দু:খ না চেনা মেয়ের কাছে তার উদ্বাস্তু আহবান ছিলো, ‘অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে’। খোলা আকাশের নীচে জীবনের অনেক আয়োজন ছিলো। সে তারা ভরা রাতেও তাকে বোঝাতে পারেন নি। সেজন্য তিনি কষ্ট পেতে ভালোবাসেন। কষ্ট পেতে ভালোবাসেন বলেই বারবার কাছে ছুটে আসেন। ছুটে এসে একবার বলেও ছিলেন, ‘সে তুমি কেন এত অচেনা হলে?’ ফেরারি এই মনটা মানে না কোনো বাঁধা। সেজন্য ফেরার সময় তিনি এও জানিয়েছেন, ‘আমি বারমাস তোমাকে ভালোবাসি, তুমি সুযোগ পাইলে বাসিও।’ তিনি নিশ্চয়ই জানতেন সুযোগ পাইলেও বাসবে না।

সেজন্য আবার গেয়েছেন, ‘এক আকাশের তারা তুই একা গুণিস নি, একটু গুণতে দিস মোরে’। মেয়েটি তাকে হাসতে দেখেছে, গাইতে দেখেছে, অনেক কথায় মুখোরও দেখেছে, কিন্তু হাসির শেষে নীরবতাটুকু দেখেনি। সে নীরবতার ফাঁকে অভিমান করে তিনি জানিয়েছিলেন, এর বেশি কাঁদালে সবাইকে একা করে আকাশে উড়াল দিবেন। হয়ত এতক্ষণে আকাশে উড়ালও দিয়েছেন। আমরা জেনে গেছি। মেয়েটি জানে কিনা, সেটা জানি না।

অজানার সেই রাজ্যে তিনি নতুন কাউকে গেয়ে শুনাবেন “সেই তুমি”। ভক্ত হয়ে মুখে হাত দিয়ে ভাববো কেন গুরুর সাথে দেখা করতে পারি নি। কোথায় হারিয়ে গেল সেই গিটারের সুর। ভাবতেই অবাক লাগে যে আকাশের তারায় আরেকটি তারা যোগ হবে। কেউ আর তারা গুনবে না গিটারের সুরে। আজকের সুরটা বেসুর ছন্দে গাইবে হাসতে দেখো,গাইতে দেখো। চোখ বন্ধ করে মন দিয়ে আবেগের কথা কেউ রঙ্গিন গীটারের সুরে গাইবে না। সেই তুমি টা আজ বড় একা হয়ে গেল। ওপারে ভালো থাকুন সেই তুমির জনক।

লেখক: আদনান বোরহান, সেই তুমির ভক্ত।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top