শেয়ারবাজারে ফিরছেন বিদেশিরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের শেয়ারবাজারে বিদেশিদের বিনিয়োগের যে আস্থার সংকট দেখা দিয়েছিলো বর্তমানে তা কাটিয়ে উঠেছে। চলতি বছরের এপ্রিল মাস থেকে বিদেশি বিনিয়োগে যে টানাপোড়া দেখা দিয়েছিলো তা কাটতে শুরু করেছে। গত সেপ্টেম্বর মাস থেকে বিদেশি বিনিয়োগ বাড়তে শুরু করেছে। এর ফলে টানা ৫ মাস পরে দেশের শেয়ারবাজারে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের লেনেদেন বেড়েছে। এমনকি চলতি মাসের (১-১৫ অক্টোবর) প্রথম পক্ষে শেয়ারবাজারে বিদেশিদের নিট বিনিয়োগ বেড়েছে ৬৯.৯২ শতাংশ।

এ বিষয়ে একাধিক মার্চেট ব্যাংকের কর্মকর্তার সাথে কথা বললে তারা বলেন, বিদেশি বিনিয়োগকারী বাংলাদেশের বিনিয়োগের জন্য বেশ কয়েক মাস পর্যবেক্ষণ করেছে। কারণ বিদেশি বিনিয়োগকারীরা খুবই সচেতন। তারা সব সময় ঝামেলা এড়িয়ে চলেন। বাজারে বিনিয়োগের আগে তারা অনেক দিক বিশ্লেষণ করে বিনিয়োগ করেন। গত কয়েক মাস তারা দেশের পরিস্থিতি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের উপর নজর রেখে বিনিয়োগ করেছিলেন। যার কারণে বাজারে বিদেশি বিনিয়োগ অনেকটাই কমে গিয়েছিলো। তবে সামনে দেশের শেয়ারবাজারে সুদিন আসছে। কারণ শেয়ারবাজারের প্রতি অনেকটাই ইতিবাচক প্রভাব দেখিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। যার মধ্যে রয়েছে আইসিবির ২ হাজার কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন। এর ৭৫ শতাংশ বা ১৫০০ কোটি টাকা শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করবে আইসিবি। এছাড়াও চীনের সাংহাই ও সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জ কনসোর্টিয়ামকে নিটা অ্যাকাউন্ট (বিদেশ থেকে পাঠানো অর্থ টাকায় রূপান্তরের বিশেষ ব্যাংক অ্যাকাউন্ট) খোলার অনুমতি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

তাছাড়া চীনা কনসোর্টিয়াম হিসেবে সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ এবং শেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জকে ডিএসইর কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে পাওয়ায় বাজারে বিদেশি বিনিয়োগ অনেকটাই বেড়েছে বলে বাজার সংশ্লিষ্টরা জানান। তারা বলেন, চীনা কনসোর্টিয়াম থেকে পাওয়া ৯৬২ কোটি টাকার মধ্যে ১৫ কোটি টাকা স্ট্যাম্প ডিউটি হিসেবে সরকারকে প্রদান করে। বাকি ৯৪৭ কোটি টাকা ট্রেক হোল্ডারদের মধ্যে বিতরণ করে দেওয়া হবে। যার পুরো অর্থই ট্রেকহোল্ডাররা শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করবেন বলে জানিয়েছেন ট্রেক হোল্ডাররা। আর এসব সুখবরে দেশের শেয়ারবাজারে বিদেশিরা ফের বিনিয়োগ বাড়িয়েছে।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, চলতি অক্টোবর মাসের প্রথম ১৫দিনে ১১ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে। এ ১১দিনে বিদেশীরা মোট ৩৭৭ কোটি ১৭ লাখ ৭০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন করেছেন। এর আগের পক্ষে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসের শেষ ১৫ দিনে (১৬-৩০ সেপ্টেম্বর) ১১ কার্যদিবসেই বিদেশীরা মোট ২২১ কোটি ৯৭ লাখ ৫০ হাজার টাকার লেনদেন করেছিল। সে হিসেবে দেখা যাচ্ছে আগের পক্ষের তুলনায় চলতি পক্ষে বিদেশীদের লেনদেন ১৫৫ কোটি ২০ লাখ ২০ হাজার টাকা বা ৬৯.৯২ শতাংশ বেড়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top