মন্দাবস্থার কারণে শেয়ারবাজার থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় কমেছে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: গত বছর শেয়ারবাজারের মন্দাবস্থার কারণে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মাধ্যমে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে (জুলাই-ডিসেম্বর’১৮) সরকারের রাজস্ব আদায় পরিমাণ কমেছে। আলোচ্য সময়ে আগের বছরের ছয় মাসের চেয়ে রাজস্ব আদায় কমেছে ৩৫ কোটি ৬১ লাখ টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গত বছর দেশের শেয়ারবাজার অনেকটাই মন্দাবস্থার মধ্যে দিয়ে গিয়েছে। আর এ কারণেই মূলত সরকার এ খাত থেকে রাজস্ব কম পেয়েছে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

তারা বলছেন, শেয়ারবাজার ভালো থাকলে টার্নওভার বৃদ্ধি পায়। এতে সরকারের রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি পায়। তেমনি শেয়ারবাজারে মন্দাবস্থা থাকলে এর বিপরীত চিত্র দেখা যায়। তাই সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি করতে এবং দেশের অর্থনীতির উন্নতির জন্য শেয়ারবাজার গতিশীল করার বিকল্প নেই বলে মনে করেন তারা।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে ডিএসই থেকে মোট রাজস্ব আদায় হয়েছে ১০৬ কোটি ৮৬ লাখ ৮৬ হাজার টাকা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ ছিল ১৪২ কোটি ৪৮ লাখ ৪৫ হাজার টাকা। এ সময়ের ব্যবধানে রাজস্ব আদায় কমেছে ৩৫ কোটি ৬১ লাখ ৫৯ হাজার টাকা।

গত ডিসেম্বরে ডিএসইর মাধ্যমে রাজস্ব আদায় হয়েছে ১৪ কোটি ৪২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। নভেম্বরে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ ছিল ১৫ কোটি ৩৪ লাখ ৮১ হাজার টাকা। এক মাসের ব্যবধানে রাজস্ব কমেছে ৯২ লাখ টাকা।

গত ডিসেম্বরে আদায় হওয়া রাজস্বের মধ্যে ব্রোকারেজ হাউস থেকে ৮ কোটি ৭০ লাখ ৪০ হাজার টাকা আদায় হয়েছে। নভেম্বরে এ খাত থেকে আদায় হয়েছিল ১১ কোটি ৬৭ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। ডিসেম্বরে ব্রোকারেজ হাউস থেকে রাজস্ব ২ কোটি ৯৬ লাখ ৯৪ হাজার টাকা কম আদায় হয়েছে।

উদ্যোক্তা পরিচালক বা প্লেসমেন্ট থেকে ডিসেম্বরে আদায় হয়েছে ৫ কোটি ৭২ লাখ ১০ হাজার টাকা। নভেম্বরে এ খাত থেকে আদায় হয়েছিল ৩ কোটি ৬৭ লাখ ৪৬ হাজার টাকা। ডিসেম্বরে উদ্যোক্তা পরিচালক বা প্লেসমেন্ট থেকে রাজস্ব আদায় ২ কোটি ৪ লাখ ৬৩ হাজার বেশি হয়েছে।

উল্লেখ, সরকার আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর ৫৩ বিবিবি ধারা অনুযায়ী ব্রোকারেজ হাউজ থেকে ০.০৫ শতাংশ এবং আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর ৫৩এম ধারা অনুযায়ী স্পন্সর ও প্লেসমেন্ট শেয়ার বিক্রি থেকে ৫ শতাংশ রাজস্ব আদায় করে থাকে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top