১০ কোম্পানি হল্টেড

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনেরেআড়াই ঘন্টায় বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১০ কোম্পানি। আলোচিত সময় কোম্পানিগুলোর শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘর শূণ্য ছিল। হল্টেড হওয়া কোম্পানিগুলো হলো- সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স, ডেল্টা ব্রাক হাউজিং ফাইন্যান্স, এমআই সিমেন্ট, স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্স, এমএল ডাইং, ড্রাগণ সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং, বিচ হ্যাচারী, এ্যাম্বি ফার্মা  এবং ফার্মা এইডস লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, দুপুর ১টার দিকে সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের ক্রেতার ঘরে ২০ লাখ ৮ হাজার ৬৯১টি শেয়ার ২৯.৭০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এমনকি কোম্পানিটি আজ সার্কিট ব্রেকার স্পর্শ করেছে। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ১০ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৯.৭০ টাকায় লেনদেন হয়।

ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্সেরক্রেতার ঘরে ৭০ হাজার ১৫৬টি শেয়ার ৬৪ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯৬ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৬৪ টাকায় লেনদেন হয়।

ডেল্টা ব্রাক হাউজিং ফাইন্যান্সের ক্রেতার ঘরে ২১ হাজার ৫২৪টি শেয়ার ১৪৮ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯৫ শতাংশ সর্বশেষ ১৪৮ টাকায় লেনদেন হয়।

এমআই সিমেন্টের ক্রেতার ঘরে ১৯ হাজার ১৫২টি শেয়ার ৭৯.৬০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৯.৯৪ শতাংশ সর্বশেষ ৭৯.৬০ টাকায় লেনদেন হয়।

স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের ক্রেতার ঘরে ৪ লাখ ৪৩ হাজার ৬২৯টি শেয়ার ৩৯.৮০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৯.৯৪ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৩৯.৮০ টাকায় লেনদেন হয়।

এমএল ডাইং-এর ক্রেতার ঘরে ১ লাখ ৯০ হাজার ২০১টি শেয়ার ৩৮.৭০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৯.৯৪ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৩৮.৭০ টাকায় লেনদেন হয়।

ড্রাগণ সোয়েটারের ক্রেতার ঘরে ৪ লাখ ২৭ হাজার ৪৬১টি শেয়ার ২৩.৯০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৯.৬৩ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৩.৯০ টাকায় লেনদেন হয়।

বিচ হ্যাচারীর ক্রেতার ঘরে ৫৭ হাজার ৭৯৭টি শেয়ার ১৫.২০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৯.৬৩ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৩.৯০ টাকায় লেনদেন হয়।

এ্যাম্বি ফার্মার ক্রেতার ঘরে ৮৩৫টি শেয়ার ৭৮৭.৫০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৭.৪৯ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৭৮৭.৫০ টাকায় লেনদেন হয়।

ফার্মা এইডসের ক্রেতার ঘরে ৫১ হাজার ৮৩৮টি শেয়ার ৭২৪.৪০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এ সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার দর ৭.৪৯ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ৭২৪.৪০ টাকায় লেনদেন হয়।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top