শেষ ঘন্টায় হল্টেড ৭ কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: ঢাকা স্টক একচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের শেষ ঘন্টায় বিক্রেতার সংকটে হল্টেড হয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ৭ কোম্পানি। আলোচিত সময় কোম্পানিগুলোর শেয়ার ক্রয় করতে ক্রেতা দেখা গেলেও বিক্রেতার ঘর শূণ্য ছিল। হল্টেড হওয়া কোম্পানিগুলো হলো- ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, ইমাম বাটন, আইএফআইসি ব্যাংক, মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ, কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স, ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্স এবং মেঘনা কনডেন্স মিল্ক লিমিটেড। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, দুপুর দেড়টার দিকে ইউনাইটেড ফাইন্যান্সের ক্রেতার ঘরে ২ লাখ ৯৩ হাজার ৬৯৩টি শেয়ার ২৮.৬০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। এমনকি কোম্পানিটি আজ সার্কিট ব্রেকার স্পর্শ করেছে। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ১০ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৮.৬০ টাকায় লেনদেন হয়।

ইমাম বাটনের ক্রেতার ঘরে ২৯ হাজার ৬১২টি শেয়ার ২৩.২০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৯৫ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৩.২০ টাকায় লেনদেন হয়।

আইএফআইসি ব্যাংকের ক্রেতার ঘরে ১৪ লাখ ৩৮ হাজার ৬৭৭টি শেয়ার ১৫.৬০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৮৫ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ১৫.৬০ টাকায় লেনদেন হয়।

মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজের ক্রেতার ঘরে ১৭ হাজার ৪৭০টি শেয়ার ১৯ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৮২ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ১৯ টাকায় লেনদেন হয়।

কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্সের ক্রেতার ঘরে ৫ লাখ ৭৩ হাজার ১টি শেয়ার ২৬.১০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৬৬ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৬.১০ টাকায় লেনদেন হয়।

ইস্টল্যান্ড ইন্স্যুরেন্সের ক্রেতার ঘরে ৪২ লাখ ৩৫ হাজার ৫৫৬টি শেয়ার ২৬.২০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৬২ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৬.২০ টাকায় লেনদেন হয়।

মেঘনা কনডেন্স মিল্কের ক্রেতার ঘরে ২৯ হাজার ৬১৩টি শেয়ার ২৬.৫০ টাকায় কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রয়ের ঘরে কাউকে দেখা যায়নি। আলোচিত সময় কোম্পানির শেয়ার দর ৯.৫০ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ ২৬.৫০ টাকায় লেনদেন হয়।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top