আর কতো পতন দেখতে চান অর্থমন্ত্রী?

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) আয়োজিত বিনিয়োগকারী ও উদ্যোক্তা কনফারেন্সে অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল বিনিয়োগকারীদের মনোবল বৃদ্ধি করতে বলেছিলেন “পুঁজিবাজারে আর কতো পতন হতে পারে আমি দেখতে চাই।” তার এই কথাটিতে সেদিন হাত তালির মাধ্যমে বেশ সমর্থনও দিয়েছিলেন বিনিয়োগকারীরা। কিন্তু বিধি বাম! অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রীর কথা মুড়ির মতো খাওয়া হলেও হজম করা যায়নি।

গত ২৮ মার্চ অর্থমন্ত্রী বাজার নিয়ে নানা আশ্বাস দেওয়ার সময় মার্কেটে ইনডেক্স সাড়ে ৫ হাজারের উপরে ছিলো। আজ এই ইনডেক্স দাঁড়িয়েছে ৫২৬২ পয়েন্টে। এই সময় পুঁজিবাজারে মোট ৯ কার্যদিবসের মধ্যে মাত্র ৩ কার্যদিবস সূচকের উত্থান হয়েছে। বর্তমানে সূচকের একেকটি পতন যেন বিনিয়োগকারীদের বুকে একেকটি তীরের মতো বিধছে। বাজারকে টেনে তুলতে একসময় স্টেকহোল্ডারদের বৈঠকের খবর অ্যান্টিবায়োটিকের মতো কাজ করলেও আজ কেউ পাত্তাই দিচ্ছে না। আগে বিনিয়োগকারীরা রাস্তায় নেমে আন্দোলন-বিক্ষোভ করলে সূচকের বেশ ঊর্ধ্বগতি দেখা যেতো। এখন মতিঝিল পাড়ায় বিনিয়োগকারীরা চিল্লাইয়া মরে গেলেও কেউ জিজ্ঞেস করছে না। গতকালকের দুই দফায় স্টেকহোল্ডারদের বৈঠকের পর আলোচনার জিস্ট বের হলো বাজারে তারল্য সংকট চলছে। আর এই সংকট কাটাতে বন্ড,টন্ড ইত্যাদি কতো হাবি জাবি দেওয়া লাগবে। এখন যদি বাজারে ইনডেক্স ৮-১০ দিন পজেটিভ থাকে তাহলে অতীত চিত্রানুযাযী দেখা যাবে, বাজারে আবারো হাজার কোটি টাকা লেনদেন হচ্ছে। বিনিয়োগকারীদের আস্থা না থাকায় সূচকের পতন নাকি সূচকের পতনে বিনিয়োগকারীদের আস্থার সংকট সে বিতর্কে না গিয়ে আইসিবি,লংকাবাংলার মতো বড় বড় প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মার্কেট মেকারের ভূমিকা পালন করা উচিত। বাজার যখনই পতনে যায় তখনই সকলের নজর থাকে আইসিবি’র দিকে। কিন্তু আইসিবি যদি নিজেই ফান্ড ক্রাইসিস দেখিয়ে সরকারের প্রণোদনার আশায় বসে থাকে তাহলে বাকিরা যাবে কোথায়?

লাখো বিনিয়োগকারীর পক্ষ থেকে মাননীয় অর্থমন্ত্রীর প্রতি আকুল আবেদন, দয়াকরে আর পতন দেখতে চাইয়েন না। আপনি বলেছিলেন এই বাজারের বিনিয়োগকারীরা অনেক ভালো, অনেক ধৈর্য্যশীল। আবেগপ্রবণে ভরপুর এই দেশের মানুষেরা একটু বাড়তি আয়ের আশায় জমানো অর্থ পুঁজিবাজারে নিয়ে এসেছে। অভিভাবক হিসেবে তাদের পুঁজি রক্ষার দায়িত্ব আপনাকেই নিতে হবে। কারিশমা দেখানো নয় বরং  বিএসইসি এবং বাংলাদেশ ব্যাংককে নিয়ে একবার বসুন। এমন কোনো উদ্যোগ নিন যাতে বিনিয়োগকারীরা আপনাকে যুগ যুগ তাদের হৃদয়ে ধারণ করে রাখেন।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

Top