স্মল ক্যাপ মার্কেটে তালিকাভুক্ত হতে আগ্রহী দুই কোম্পানি

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক একচেঞ্জ (ডিএসই) ছোট এবং মাঝারি আকারের কোম্পানিগুলির বৃদ্ধির সুবিধার্থে স্মল ক্যাপ মার্কেট (এসএমই) প্লাটফরম উদ্বোধন করা হয়েছে। আর এসএমই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে মূলধন বাড়াতে আগ্রহী হয়েছে দুই কোম্পানি। এগুলো হলো- কৃষিবিদ সীড লিমিটেড এবং এনেক্স স্যুটস লিমিটেড হোটেল অ্যান্ড রিসোর্ট। মূলধন উত্তোলন প্রক্রিয়ার অংশ হিসাবে সম্প্রতি উভয় কোম্পানির সঙ্গে ইস্যু ব্যবস্থাপক হিসেবে এমটিবি ক্যাপিটাল চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, কৃষিবিদ সীড ১৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে আর এনেক্স স্যুটস ১০ কোটি টাকা উত্তোলন করে স্মল ক্যাপ মার্কেটে তালিকাভুক্ত হতে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

কৃষিবীদ গ্রুপের একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কৃষিবিদ সীড। কোম্পানি সিরিয়াল এবং অন্যান্য উচ্চ মূল্যের ফসলের উচ্চ গুণমানের বীজ উৎপাদন, প্রক্রিয়া এবং কৃষকদের ফসল উৎপাদন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। অভিজ্ঞ কৃষি বিজ্ঞানী সরাসরি এই সমস্ত ক্রিয়াকলাপে জড়িত। তারা মান এবং পরিষেবাদি নিশ্চিত করার জন্য আধুনিক প্রযুক্তির অবকাঠামো ব্যবহার করে। অন্যদিকে বগুড়ার জালেশ্বরিতোলায় অবস্থিত একটি বিলাসবহুল অবলম্বন এনেক্স স্যুটস।

চুক্তি স্বাক্ষরে উপস্থিত ছিলেন কৃষিবিদ সিন্ডের পক্ষে চেয়ারম্যান মো: আলী আফজাল, কোম্পানির ফাইন্যান্স ডিরেক্টর সিফাত আহমেদ চৌধুরী এবং আনক্স স্যুটসের পক্ষ থেকে ব্যবস্থাপনা পরিচালক খন্দকার এম আজাদ নিজ নিজ কোম্পানির পক্ষ থেকে স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে ইস্যু ম্যানেজারের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন এমটিবি ক্যাপিটালের সি্ইও খালেদ বাশার আবু তাহের মোহাম্মদ এবং ম্যানেজার আব্দুল্লাহ সালেহ আরেফিন।

এসএমই প্ল্যাটফর্মের নিয়ম অনুসারে, শুধুমাত্র যোগ্যতাসম্পন্ন বিনিয়োগকারীরা তহবিল উত্থাপন করার জন্য এসএমইগুলির দেওয়া প্রস্তাবটি সাবস্ক্রাইব করার জন্য তাদের ইচ্ছা জমা দিতে পারেন। যোগ্যতাসম্পন্ন বিনিয়োগকারীরা হল মার্চেন্ট ব্যাঙ্কার এবং পোর্টফোলিও ম্যানেজার, সম্পদ ব্যবস্থাপনা সংস্থা, মিউচুয়াল ফান্ড এবং সমষ্টিগত বিনিয়োগ প্রকল্প (সিআইএস), স্টক বিক্রেতা, ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, বীমা সংস্থা, বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল পরিচালকদের, বিকল্প বিনিয়োগ তহবিল, বাজার প্রস্তুতকারক, তালিকাভুক্তির প্রদানকারী সিকিউরিটিজ, আবাসিক বা অনাবাসী বাংলাদেশী, যাদের ন্যূনতম নেট মূল্য ১০ কোটি এবং কমিশন দ্বারা অনুমোদিত অন্যান্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এ বিনিয়োগকারীদের জন্য সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল) ভিন্ন ধরনের বিও হিসাব প্রণয়ন করবে। স্বল্প মূলধনী প্রতিষ্ঠান হিসেবে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির জন্য কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন কমপক্ষে পাঁচ কোটি টাকা থাকতে হবে। আর তালিকাভুক্তির পর পরিশোধিত মূলধন কমপক্ষে ১০ কোটি টাকায় উন্নীত করতে হবে। তবে সর্বোচ্চ পরিশোধিত মূলধন ৩০ কোটি টাকার নিচে থাকতে হবে।

এই বাজারে ডাইরেক্ট লিস্টিংয়ের মাধ্যমে কোনো কোম্পানি তালিকাভুক্ত হতে পারবে না এবং শেয়ারধারীদের শেয়ার এক বছর পর্যন্ত লক-ইন থাকবে। এখানে কোম্পানিগুলোরপ শেয়ার কাগুজে শেয়ার হতে পারবে না। শেয়ার লেনদেন হবে ইলেকট্রনিক ট্রেডিং প্লাটফর্মে এবং লেনদেন নিষ্পত্তির সময় হবে স্টক এক্সচেঞ্জের মূল বাজারের মতো। আর শেয়ার লেনদেন হবে স্টক ব্রোকারদের মাধ্যমে।

শেয়ারবাজারনিউজ/এম.আর

আপনার মন্তব্য

Top