অস্বাভাবিক উত্থান কিংবা পতন কোনটিই চায় না বিনিয়োগকারীরা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে অর্থাৎ গত সূচকের ১০৮ পয়েন্টের উত্থান হয়েছে। আজ আবার ৫৯ পয়েন্টের পতন হয়েছে। পুঁজিবাজারের এরকম অস্বাভাবিক উত্থান কিংবা পতন কোনটিই চায় না বিনিয়োগকারীরা।দীর্ঘমেয়াদি স্থিতিশীলতায় একটি গতিশীল বাজারের প্রত্যাশায় রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

আজ সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন লেনদেনের শুরু থেকেই সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। সোমবার লেনদেন শেষে সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। আজ দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৮৭ কোটি ৭৩ লাখ ২ হাজার টাকা।

আজ দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫২৭৬ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১১৯৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৮৩৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩৪২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৫০টির, কমেছে ২৬২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির। আর দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৩৮৭ কোটি ৭৩ লাখ ২ হাজার টাকা।

এর আগের কার্যদিবস দিন শেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ১০৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৫৩৩৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১২১৫ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৮৪৯ পয়েন্টে। আর ওইদিন লেনদেন হয়েছিল ৪৪৩ কোটি ৫৫ লাখ ৯৭ হাজার টাকা। সে হিসেবে আজ ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ৫৫ কোটি ৮২ লাখ ৯৫ হাজার টাকা।

এদিকে দিন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএসইএক্স ১২২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৯ হাজার ৭৪৮ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৩৯টি কোম্পানির ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৪৬টির, কমেছে ১৬৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ১০ কোটি ৬৫ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top