মোদির বিরুদ্ধে বিধি ভঙ্গের অভিযোগ

শেয়ারবাজার ডেস্ক: মহান মানুষেররা বলেন, ঈশ্বরের কাছে যাওয়ার পথ কন্টকাকীর্ণ কিন্তু দেশের (ভারতের) প্রধানমন্ত্রী (নরেন্দ্র মোদী) দেখিয়েছেন, ঈশ্বরপ্রাপ্তির পথ আসলে লাল গালিচাময়। আজ ভোট দেবে তাঁরই লোকসভা কেন্দ্র বারাণসী, সারা দেশে শয়ে শয়ে জনসভা করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। কিন্তু নির্বাচনের শেষ পর্বে তিনি হিমালয়ে চলে গেলেন! নরেন্দ্র মোদির কেদারনাথ মন্দির সফর নিয়ে তাই স্বাভাবিকভাবেই বিরোধী দল আক্রমণ শুরু করেছে।

কংগ্রেসের তরফে ঈশ্বরের ঘরে প্রধানমন্ত্রীর ‘লাল কার্পেট’ পদযাত্রার কঠর সমালোচনা করা হয়েছে। অন্যান্য রাজনৈতিক নেতারা শীঘ্রই এই আক্রমণে যোগ দিয়েছেন। হিন্দুদের তীর্থস্থানের মধ্যে সবচেয়ে পবিত্রতম মন্দির বলেই মনে করা হয় কেদারনাথকে, সেখানে গিয়েও লাল গালিচায় হাঁটা, আর সর্বক্ষণ ক্যামেরা নিয়ে ঘোরা প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে হাসাহাসি শুরু করেছেন নেটিজেনরাও। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে আরও তুলে ধরা হয়- কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা এরই মধ্যে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে টুইট করেছেন। তিনি টুইট বার্তায় লেখেন, ‘সত্যিকারের ভক্তরা লাল গালিচা পেতে নয়, ঈশ্বরের শরণে যাওয়ার আগে তাদের অহংকার ও ঔদ্ধত্যকে বিসর্জন করে।’

আম আদমি পার্টির সঞ্জয় সিং টুইট করেছেন, প্রধানমন্ত্রী মোদি দেবদেবীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করারও ছবি তুলেছেন! ‘ক্যামেররা ঈশ্বরের জয় হোক!’

সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি অভিযোগ করেছেন যে, মোদির এই মন্দির সফর নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে।

ইয়েচুরি টুইট করেছেন, ‘ধর্ম ব্যক্তিগত বিশ্বাসের ব্যাপার এবং ইসি বারেবারে জানিয়েছে যে একে ভোট গ্রহণের জন্য ব্যবহার করা যাবে না। কিন্তু ভোটের আগে শান্ত সময়ের মধ্যেও টিভি চ্যানেলে তাঁর কেদারনাথ মন্দিরে ধর্মীয় কার্যকলাপের দৃশ্যে মোদি এমসিসি লঙ্ঘন করেছেন এবং নির্বাচন কমিশন সব দেখেও ঘুমিয়ে রয়েছে!’

দুই দিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী মোদী উত্তরাখণ্ডে কেদারনাথের কাছে একটি পবিত্র গুহায় গেরুয়া বস্ত্র পরে ধ্যানে বসেছেন। শনিবার প্রধানমন্ত্রী কেদারনাথ মন্দিরে প্রার্থনাও জানিয়েছেন। তিনি আজ বদ্রীনাথ মন্দির পরিদর্শন করবেন।

উত্তরাখণ্ডের বিজেপির টুইটারে পোস্ট করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে ৬৮ বছর বয়সে প্রধানমন্ত্রী মোদি পিঠে একটা বালিশ দিয়ে, বিছানায় বসে, ধ্যান করছেন। পরণে গেরুয়া বস্ত্র। আরেকটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর হাত জড়ো করে গুহার মধ্যে প্রবেশ করছেন।

জাতীয় নির্বাচনের সপ্তম ও শেষ দফার ভোটগ্রহণ শেষ। নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধি অনুযায়ী, ভোট শুরু হওয়ার ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই সমস্ত প্রচার শেষ করতে হবে। ভোট গণনা শুরু হবে ২৩ মে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top