মিউচ্যুয়াল ফান্ড: না বুঝে RIU’কে বিতর্কিত করা হচ্ছে


শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দীর্ঘ সময় ধরে পুঁজিবাজারে মন্দাবস্থা বিরাজ করছে। এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট লক্ষ লক্ষ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীগণও বিশাল ক্ষতির সম্মুখীন। বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায় পুঁজিবাজারের মূল সমস্যা হলো তারল্য সংকট, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর অভাব এবং আর্থিক খাতের লাগামহীন দূর্দশা।
পুঁজিবাজারের এই পরিস্থিতিতে যাতে টাকা বাইরে পাচার না হয় তার জন্য প্রয়োজন স্টক ডিভিডেন্ড প্রদান। মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রে বোনাস শেয়ার বা RIU প্রদানের ব্যাপারে মতামত জানতে চাইলে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ মিউচ্যুয়াল ফান্ড ব্যবস্থাপক আইসিবি এএমসিএল এর সাবেক সিইও এবং আইসিবি’র সাবেক মহাব্যবস্থাপক (ফিন্যান্স অ্যান্ড অ্যাডমিন) মো. নাসিরউদ্দিন আহমেদ বলেন- পুঁজিবাজারের বর্তমান সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে কোনো মিউচ্যুয়াল ফান্ড RIU দিতে চাওয়া বা দেওয়া স্বাভাবিক এবং এটি আইনসিদ্ধ। কাজেই না বুঝে RIU কে কোনো কোনো মহল বিতর্কিত করছেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে মিউচ্যুয়াল ফান্ড বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ড. ফজলুল হক বলেন, সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (মিউচ্যুয়ালফান্ড) বিধিমালা, ২০০১ অনুযায়ী ফান্ডগুলো নগদ লভ্যাংশের পাশাপাশি Reinvestment বা পুনঃবিনিয়োগ পদ্ধতিতে লভ্যাংশ প্রদান করে থাকে। Reinvestment মিউচ্যুয়ালফান্ড সমূহের একটি ডিভিডেন্ড প্রদানের পদ্ধতি, যা নগদ লভ্যাংশের একটি বিকল্প পদ্ধতি হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এ পদ্ধতিতে বিনিয়োগকারীগণ নগদ লভ্যাংশের পরিবর্তে ফান্ড Unit পেয়ে থাকেন, যা তাদের বিনিয়োগ খরচ কমাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। এছ‍াড়া, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ২০১৩ সালের ৮ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে RIU প্রদানের অনুমতি প্রদান করে যা তৎকালীন পুঁজিবাজারের মন্দাবস্থা কাটিয়ে উঠার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।
পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী জাতীয় ঐক্য ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক মো. সাইদ হোসেন খন্দকার এ বিষয়ে বলেন, RIU প্রদান মন্দাবাজারে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। পুঁজিবাজারে মন্দাবস্থায় RIU প্রদান নগদ লভ্যাংশ প্রদানের চেয়ে বেশি বাজারবান্ধব। এর কারণ হলো, একটি ফান্ড যদি নগদ অর্থ বিনিয়োগকারিদের প্রদান করতে চায় তাহলে ফান্ডটিকে তার বিনিয়োগকৃত শেয়ার বাজারে বিক্রয় করতে হয়। এতে বাজারে Sell Pressure তৈরী হয় এবং বাজারে বৈরী প্রভাব তৈরি হওয়ার আশংকা থাকে। কিন্তু যদি ফান্ডটি RIU প্রদান করে, তবে তার হোল্ডিং শেয়ার বিক্রয়ের ঝুঁকি নিতে হয় না। বরং ফান্ডটি RIU এর অর্থ বাজারে পুনঃ বিনিয়োগ করতে পারে। এতে করে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ বৃদ্ধি পায়, যা মন্দাবাজারে ইতিবাচক ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।
এছাড়া, RIU প্রদান দীর্ঘ মেয়াদী রিটার্ন তৈরিতেও সহায়ক। মিউচ্যুয়াল ফান্ড একটি দীর্ঘ মেয়াদী ফিন্যান্সিয়াল ইন্সট্রুমেন্ট। এর প্রধান কাজ বিনিয়োগকারীদের জন্যে দীর্ঘমেয়াদী ভ্যালু তৈরী করা। একটি ফান্ড যদি নগদ লভ্যাংশের পরিবর্তে RIU প্রদান করে তবে Net Asset Value (NAV) ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পায়, ফলে বিনিয়োগকারীদের দীর্ঘমেয়াদি রিটার্নও তৈরী হয়।

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top