মেসি দেখলেন লাল কার্ড, আর্জেন্টিনা হলো তৃতীয়

শেয়ারবাজার ডেস্ক: কোপা আমেরিকায় চিলির বিপক্ষে ২-১ গোলের জয়ে তৃতীয় হয়ে এবারের শেষ করেছে আর্জেন্টিনা। দলের জয়ে আর্জেন্টিনার পক্ষে গোল দুইটি করেছেন সার্জিও আগুয়েরো ও পাওলো দিবালা। চিলির পক্ষে একটি গোল শোধ করেছেন স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনায় লিওনেল মেসির সতীর্থ আর্তুরো ভিদাল।

তবে জয় ছাপিয়ে লিওনেল মেসির লাল কার্ড নিয়েই এ ম্যাচে বিতর্ক বেশি। গত আসরে চিলির কাছে হেরেছিল আর্জেন্টিনা। তাই কিছু প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ। এই ম্যাচে আর্জেন্টিনা শুরুটা বেশ দারুণ করে। ম্যাচের প্রথমার্ধ্বে ২-০ গোলের লিড নেয় মেসি বাহিনী।

ম্যাচের ১২ মিনিটের মাথায় মেসির সহায়তায় গোল করেন সার্জিও আগুয়েরো। এরপর ম্যাচের ২২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন পাউলো দিবালা। লো চেলসো বড় বাড়ান তাকে। বড় জয়ের দিকেই তখন চোখ আর্জেন্টিনার।
ম্যাচে তখন ২-০ গোলে এগিয়ে আর্জেন্টিনা। চাপে চিলি। আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলেও গোল করতে পারছে না তারা। এমন পরিস্থিতিতে ম্যাচের ৩৭ বল দখলের লড়াইয়ে এক পর্যায়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন মেডেল ও মেসি। অবশ্য মেসিকেই বারবার ধাক্কা দিতে থাকেন মেডেল। এ সময় মেসিকে শান্তই থাকতে দেখা গেছে। তারপরও রেফারি দুই জনকেই লাল কার্ড দেখিয়েছেন। মেডেল ও মেসি পাওয়ায় ১০ জনের দলে পরিণত হয় দুই দল।

আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে এই দ্বিতীয়বার লাল কার্ড দেখলেন মেসি। এর আগে অভিষেক ম্যাচেই তিনি লাল কার্ড দেখেছিলেন।

এই ম্যাচে মেসি প্রথমার্ধে চিলির ফুটবলারের সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে নামেন। বল সাইড লাইনে চলে যায়। লাইন থেকে ফিরে আসা মেডেলের সঙ্গে মেসির চোখা-চুখি হয়। এরপরই মেসিকে শরীর দিয়ে ধাক্কা দেন মেডেল। মেসি শক্ত চোয়ালে তাকিয়ে থাকলে আরও জোরে ধাক্কা দেন চিলি ফুটবলার। মেসি শরীর দিয়ে ধাক্কা সামাল দেন। এরপর মেডেলের শরীরে হাত না লাগিয়ে বাহু দিয়ে তাকে থামান। পরে রেফারি দুজনকেই মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন।

শেষ পর্যন্ত ২ গোলের লিড নিয়েই প্রথমার্ধ সমাপ্ত করে আর্জেন্টিনা। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে আর নিজেদের খেলার ছন্দটা ধরে রাখতে পারেননি আগুয়েরো-দিবালারা। সুন্দর ফুটবলের চেয়ে শরীরনির্ভর কুৎসিত খেলার প্রদর্শনী চলতে থাকে পুরো দ্বিতীয়ার্ধ জুড়ে। যেখানে ছাড় দেননি কেউ কাউকে। তাই তো মেসি-মেডেলের লাল কার্ড ছাড়াও দুই দল মিলে হলুদ কার্ড দেখেছে আরও ৮টি।

এরই মাঝে ম্যাচের ৫৯ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ব্যবধান কমান চিলি মিডফিল্ডার ভিদাল। বিতর্কিত এক সিদ্ধান্তে পেনাল্টি পায় গত দুই আসরের চ্যাম্পিয়নরা। রিপ্লেতে দেখা যাচ্ছিলো লো সেলসোর করা ফাউলটি হয়েছে ডি-বক্সের বাইরে। তবু চিলির পক্ষে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সহজ সুযোগ পেয়ে গোল করেন ভিদাল। তবে ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোনো গোল করতে পারেনি কোনো দল। যার ফলে ২-১ গোলের জয়েই তৃতীয় স্থান পেয়ে যায় আর্জেন্টিনা।

তবে মেসিকে দেয়া লাল কার্ড নিয়ে প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে। রেফারি চাইলে দু’জনকেই হলুদ কার্ড দিতে পারতেন। কিংবা কোপার এমন রঙ ছড়ানো ম্যাচে জল ঢালার আগে ভিএআরের স্মরণাপন্ন হতে পারতেন। কিন্তু তিনি বির্তকিত সিদ্ধান্ত নেন। বাকি সময়টা দুই দল দশ জনের দল নিয়েই খেলে। এর আগে ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচে রেফারিং বিপক্ষে গেছে বলে অভিযোগ করেন মেসি।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top