পুঁজিবাজারে প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের ভূমিকা প্রশংসনীয়

লাগাতার দরপতনে পুঁজি হারিয়ে যখন বিনিয়োগকারীরা হায়-হুতাশে নির্বাক, নিয়ন্ত্রক সংস্থা পরিস্থিতি সামাল দিতে যখন যারপরনাই চেষ্টা চালাচ্ছিলো তখনই অগ্রদূতের মতো এগিয়ে এলো বাংলাদেশ ব্যাংক। দেশের অর্থনীতি রক্ষার জন্য পুঁজিবাজারের অপরিসীম ভূমিকার কথা মাথায় রেখে এই বাজার রক্ষায় বাংলাদেশ ব্যাংক প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছে।

শেয়ারবাজারের লাগাতার দরপতন ঠেকাতে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে শেয়ার কিনে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য যাবতীয় পলিসি সাপোর্ট দেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এতে অন্তত ১৮টি ব্যাংক শেয়ারবাজারে দুই হাজার কোটি টাকার মতো বিনিয়োগ করার সুযোগ পাবে। খাদের মধ্যে পড়ে থাকা শেয়ারবাজারকে টেনে তুলতে বাংলাদেশ ব্যাংকের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে বাজার সংশ্লিষ্টরা। অবশ্য এই সময়ে বাজার থেকে শেয়ার কিনলে ব্যাংকগুলোই বিপুল পরিমাণ মুনাফা নিতে পারবে।

কারণ বর্তমানে মার্কেট পি/ই ১৩.৭৫ যা অত্যন্ত বিনিয়োগ উপযোগী। অল্প কিছু শেয়ার ছাড়া বেশিরভাগ শেয়ারের দরই বিনিয়োগের অনুকূলে রয়েছে। এই অবস্থায় ব্যাংকগুলো দীর্ঘমেয়াদে বিনিয়োগ করলে ব্যাপক মুনাফা করা সম্ভব। যেখানে খেলাপী ঋণের বোঝা বয়ে চলতে ব্যাংকগুলো হিমসিম খাচ্ছে, সেখানে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করে ব্যাংকগুলো তাদের মুনাফায় ইতিবাচক প্রভাব ফেলাতে পারবে। আর বাংলাদেশ ব্যাংক সেই সুযোগটিই ব্যাংকগুলোকে নেওয়ার জন্য রাস্তা খুলে দিয়েছে। এতে শেয়ারবাজারের তারল্য সংকটও কাটবে আবার ব্যাংকগুলোর মুনাফাও হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এই সাপোর্টের জন্য বিনিয়োগকারীদের মনে চলমান আতঙ্ক কিছুটা হলেও দূর হয়েছে। ব্যাপক লোকসানে থাকার পরও যারা  শেয়ার ছেড়ে বের হয়ে যাচ্ছিলেন তারা গেলো দুই-তিন সেল প্রেসার তৈরি করেননি। বেশিরভাগ বিনিয়োগকারী যার যার অবস্থান থেকে শেয়ার ধরে রাখার চেষ্টা করেছেন। সিকিউরিটিজ হাউজ-মার্চেন্ট ব্যাংকের নির্বাহীরা পর্যন্ত বিনিয়োগকারীদের ধৈর্য্য ধরতে পরামর্শ দিচ্ছেন। সর্ব মহল থেকেই্ মার্কেটকে ভালো করার জোর প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী সাম্প্রতিক সময়ে পুঁজিবাজারকে যতটা গুরুত্ব দিয়েছেন আগে কখনোই এতো গুরুত্ব দিতে দেখা যায়নি। এখন শুধু প্রয়োজন মার্কেট মেকারের দায়িত্বে থাকা প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের যার যার অবস্থান থেকে নিজেদের দায়িত্বটুকু পালন করা। সিন্ডিকেট করে শুধু নিজেদের লাভ দেখলে হবে না, নৈতিকতা থেকে অন্যান্য বিনিয়োগকারীদের স্বার্থও দেখতে হবে। সবাই এই বাজারে মুনাফা করতে এসেছে। এতে কেউ হারবে কেউ জিতবে এটাই পুঁজিবাজারের ধর্ম। কিন্তু টাকার জোরে নৈতিকতার অবক্ষয় হওয়াটা সত্যিই হতাশাজনক।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top