বন্ধু দিবসে স্মৃতিচারণ করে যা বললেন বুবলী

শেয়ারবাজর ডেস্ক: ‘স্কুল, কলেজ কিংবা বিশ্ববিদ্যালয় পার করলেও তাদের বাইরে পরিবারই আমার সবচেয়ে কাছের বন্ধু। ক্লাস করার বাইরে বান্ধবীদের সাথে কখনও আলাদা করে তেমন সময় কাটানো হয়নি। ক্লাস শেষে বাসায় চলে আসতাম আর পরিবারের সবার সাথে আড্ডা দিতাম’।

আজ রোববার (৪ আগস্ট) বন্ধু দিবস উপলক্ষে স্মৃতিচারণ করে কথাগুলো বলছিলেন ঢাকাই সিনেমার চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী।

বুবলীর কাছে শুধু একটি দিনই বন্ধু দিবস নয়। তার কাছে সারা বছরই বন্ধু দিবস বলে বিবেচ্য। শুধুমাত্র একটি দিনকে তিনি বিশেষ বলে মনে করেন না।

বুবলী বলেন, আমার সবচেয়ে কাছের বন্ধু পরিবার। স্কুল জীবনে গার্লস স্কুলে মর্নিং শিফটে পড়েছি। কলেজ জীবনও কেটেছে মহিলা কলেজে। স্কুল-কলেজে পড়াকালীন ক্লাস করতাম আবার বাসায় ফিরে আসতাম। কিন্তু আলাদাভাবে বান্ধবীদের সঙ্গে সেভাবে সময় দেয়া, আড্ডা দেয়া হয়ে উঠেনি। যে কারণে পড়াশোনা বা কাজের বাইরে সেভাবে বন্ধু-বান্ধব গড়ে ওঠেনি।

আমার দুই বোন আর এক ভাই। সবার সঙ্গে আমি ফ্রি। ভাই-বোনদের সঙ্গে আড্ডা দেয়া, মজা করা আগেও করেছি এখনও করি।

আব্বু এখনও আমাদের ‘আপনি’ বলে সম্বোধন করেন। তারপরও আব্বু-আম্মুর সঙ্গে আমাদের সম্পর্কটা খুবই বন্ধুত্বপরায়ণ। শাসনের সময় শাসন করেন, আবার ভালোবাসার সময় ঠিকই অনেক ভালোবাসেন। এখন কাজের বাইরে একটু সময় পাওয়া মানেই পরিবারের সঙ্গে থাকা। সবকিছু মিলিয়ে পরিবারই আমার সবচেয়ে বড় বন্ধু। আমার মনে হয়- পরিবারের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক হওয়াটা সবচেয়ে জরুরি। আমি মনে করি, এটা সবার জন্যই প্রয়োজন।

আমার যখন টিনএজ তখনকার সময়ের একটা ঘটনা খুব মনে পড়ে আমার। আমি তখন ক্লাস এইট কিংবা নাইনে পড়ি। আমার মেঝো আপু তখন কলেজে পড়ে। একটি বিষয় নিয়ে আমরা দুই বোন খুব তর্ক করছিলাম। এক পর্যায়ে আপু বলল, ‘পাগল নাকি’। আমি তার উত্তরে বললাম, ‘তুমি তো শিওর না আমি পাগল কিনা। সেজন্য প্রশ্ন করলা। কিন্তু আমি শিওর তুমি পাগল।’

সেই ছোটবেলায় এতটা যুক্তি দিয়ে কথা বলার এসব ঘটনা নিয়ে এখনও বাসায় হাসি ঠাট্টা হয়। এই ধরনের খুনসুটি এখনও হয় আমাদের মাঝে। আমার মনে হয় না, এর চেয়ে ভালো বন্ধুত্বের সম্পর্ক বাইরে কারো সঙ্গে আমার হতো। ওরা আসলে আমার দুই বোন না, বরং বড় দুই ভাইয়ের মতো। এখনও সবসময় শাসন করে, ভালোবাসে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

Top