‘বাংলাদেশি হিন্দুরা স্বাগত, মুসলমানদের ঠাঁই নেই’

শেয়ারবাজার ডেস্ক: ভারতের আসামে নাগরিক পুঞ্জের (এনআরসি) চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ পড়েছে ১৯ লাখের বেশি মানুষের নাম। আশ্চর্য হলেও সত্য এনআরসিতে নেই ভারতের পঞ্চম রাষ্ট্রপতি ফখরুদ্দিন আলী আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যরাও!

এদিকে শনিবার বর্ধমানে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এক সাংগঠনিক সভায় বলেছেন, বাংলাদেশি হিন্দুরা এদেশে স্বাগত কিন্তু অনুপ্রবেশকারী মুসলমানদের ঠাঁই নেই। তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ক্ষমতায় এলে সেখানেও এনআরসি জারি করা হবে।

তবে গতকাল রবিবার (১ সেপ্টেম্বর) কলকাতায় বিশাল শান্তি মিছিল বের করে বাম দলের জোট। সেখানে তারা দাবি তোলে, আসামে এনআরসির নামে সাম্প্রদায়িক বিভাজন চলবে না। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে। জম্মু ও কাশ্মীরে প্রতিষ্ঠা করতে হবে শান্তির বাতাবরণ। সেখানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধন দৃঢ় করতে হবে। এনআরসির নামে ভারত থেকে কাউকে তাড়ানো যাবে না।

এদিকে আসামের ১৯ লাখেরও বেশি মানুষের নাম চূড়ান্ত জাতীয় নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়ায়, এখন বড় প্রশ্ন হচ্ছে ১৯ লাখ বাংলাভাষী মানুষ। এবং যাদের সিংহভাগই মুসলমান, এখন কী হবে তাদের। তারা কি রাষ্ট্রহীন হবে?

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top