পুঁজিবাজারে লেনদেন বেড়েছে

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের পতন ঘটেছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে তিন দিনই কমেছে সূচক। বাকি দুই কার্যদিবস বাড়লেও এর মাত্রা ছিলো সামান্য। এরই ধারাবাহিকতায় গত সপ্তাহে সূচক ও গড় লেনেদেনে পতন ঘটে। এদিকে সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। তবে টাকার অংকে গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা বেড়েছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ২১১ কোটি ৭৭ লাখ ১৯ হাজার ৩৩৭ টাকা বা ১২.৫৬ শতাংশ।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহ শেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক কমেছে ১.৫৮ শতাংশ বা ৭৭.৯০ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ কমেছে ১.১৩ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক কমেছে ২.৯০ শতাংশ বা ৩৩.৫৮ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৫৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৮৩টির কোম্পানির। আর দর কমেছে ২৩৯টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির এবং লেনদেন হয়নি ২টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ১ হাজার ৮৯৭ কোটি ৯৫ লাখ ২১ হাজার ৭৩৩ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ১ হাজার ৬৮৬ কোটি ১৮ লাখ ২ হাজার ৩৯৬ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন বেড়েছে ১২.৫৬ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৪.৫৬ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১০.৮৬ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৩.৬০ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ০.৯৪ শতাংশ।

সপ্তাহ শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ১৩৪.৮০ পয়েন্ট বা ১.৪৮ শতাংশ কমে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৯৬০ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাতবদল হওয়ার ৩০৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৭৯টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ২০৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১৫৮ কোটি ৫৬ লাখ ৯৫ হাজার ২৮০ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top