যে কারণে ডিএসই’র এমডি নিয়োগ হচ্ছে না

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: দুই দফায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নিয়োগ দিতে পারেনি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। মূলত যেসব প্রার্থী ডিএসই’র এমডি হিসেবে মনোনীত করে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জে (বিএসইসি) পাঠানো হচ্ছে তাদেরকে কাউকেই যোগ্য মনে করছে না কমিশন। যে কারণে ডিএসই’র এমডি নিয়োগে সময় অতিক্রান্ত হওয়ার পরও কোন ব্যক্তিকে ডিএসই’র এই প্রধান নির্বাহী পদে বসানো যাচ্ছে না।

এদিকে ডিএসই’র এমডি নিয়োগের বিষয়ে বিএসইসির কমিশনার প্রফেসর হেলাল উদ্দিন নিজামী জানিয়েছেন, ডিএসই’র এমডি এমন লোক হতে হবে যিনি অন্যের মন রাখার জন্য কাজ করবেন না। সম্পূর্ণ স্বাধীন হয়ে স্টক এক্সচেঞ্জের উন্নতির জন্য যিনি কাজ করবেন, যিনি আগামী তিন বছরে স্টক এক্সচেঞ্জকে কোথায় নিয়ে দাঁড় করাতে চান সে বিষয়ে ষ্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে পারবেন তিনিই স্টক এক্সচেঞ্জের এমডি হওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।

উল্লেখ্য, এমডি নিয়োগ দেয়ার জন্য বিএসইসি’র তিন মাস সময় চাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই’র পর্ষদ। এমডি নিয়োগের প্রক্রিয়ায় গণমাধ্যমে দুই দফা বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল ডিএসই। এরই ধারাবাহিকতায় এমডি পদের জন্য আবেদন থেকে সাতজন প্রার্থীকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হয়। এসব প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নিয়ে প্রাথমিকভাবে তিনজনের নাম চূড়ান্ত করে পর্ষদে পাঠায় নিয়োগ সংক্রান্ত নমিনেশন অ্যান্ড রিমুনারেশন কমিটি (এনআরসি)। কিন্তু এ তিনজন প্রার্থী এমডি হওয়ার যোগ্য হয়নি। এমডি পদে যোগ্য লোকদের ডিএসই গত ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন করার শেষ সময় বেধে দেয়। এর আগের গত ৭ আগষ্ট প্রথমবার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল ডিএসই। তাতে ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আবেদন জমা দিতে বলা হয়েছিল। দুই দফা বিজ্ঞপ্তির পর প্রাপ্ত আবেদন যাচাই বাছাই করে সাতজন প্রার্থীকে সাক্ষাৎকারে ডাকার সিদ্ধান্ত নেয় ডিএসইর এমডি নিয়োগ সংক্রান্ত নমিনেশন অ্যান্ড রিমুনারেশন কমিটি (এনআরসি)। আর এসব প্রার্থীদের সাক্ষাৎকারের জন্য ২ অক্টোবর ডাকা হয়। কিন্তু তাদের মধ্য থেকে কাউকে যোগ্য মনে না হওয়ায় তিনমাস সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই পর্ষদ।
এমডি নিয়োগে কয়েকটি বিষয়ের উপর জোর দিয়েছে ডিএসই। এগুলোর মধ্যে প্রার্থীর ব্যবস্থাপনা, সেলস, মার্কেটিং, পাবলিক রিলেশন, প্রডাক্ট ডেভেলপমেন্ট, শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, কর্মদক্ষতা থাকতে হবে। এর মধ্যে শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়ে বলা হয়েছে- প্রার্থীকে ব্যবস্থাপনায় ১০ বছরের অভিজ্ঞতাসহ অর্থনীতি, পরিসংখ্যান, গণিত বা আইনের স্নাতক হতে হবে। এছাড়া সিএফএ, সিএ, সিএমএ, সিএস, সিপিএ-এর মতো পেশাগত ডিগ্রি থাকতে হবে। তবে পুঁজিবাজারের উপর আন্তর্জাতিক কোনো ডিগ্রি বা অভিজ্ঞতা থাকলে প্রার্থীকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
স্টক এক্সচেঞ্জ ডি-মিউচ্যুয়ালাইজেশন আইন অনুযায়ী, স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের মেয়াদ তিন বছর। তবে কমিশনের অনুমোদনক্রমে তিনি আরো এক মেয়াদে ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে থাকতে পারবেন। তাই ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে মাজেদুর রহমানকে পুনঃনিয়োগের জন্য বিএসইসির কাছে আবেদন করে ডিএসই পর্ষদ। কিন্তু বিএসইসি তা নাকচ করে দেয়ায় এমডি খুঁজতে হচ্ছে ডিএসইকে। ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদ শূন্য হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে নিয়োগ দেয়ার বিধান রয়েছে। সে অনুযায়ী আগামী অক্টোবরের মধ্যে ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিয়োগ দেয়ার কথা ছিল।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

One Comment;

Top