স্থিতিশীলতার ধারাবাহিকতায় বাজার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে চার দিনই বেড়েছে সূচক। তবে এক কার্যদিবস বাড়লেও এর মাত্র ছিলো সামান্য। এরই ধারাবাহিকতায় গত সপ্তাহে সব ধরনের সূচকের উত্থান ঘটলেও ডিএসই ৩০ সূচকের ক্ষেত্রে উল্টো চিত্র দেখা যায়। এদিকে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা বেড়েছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১৯.৯১ শতাংশ।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহ শেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ০.৫৩ শতাংশ বা ২৪.৭৭ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ কমেছে ০.১৮ শতাংশ বা ২.৯২ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ০.০৪ শতাংশ বা ০.৩৯ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৫৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮০টির কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৫৬টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৫টির এবং লেনদেন হয়নি ২টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ২ হাজার ৩৭৬ কোটি ৬ লাখ ৫০ হাজার ৩৮১ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ১ হাজার ৯৮১ কোটি ৪৯ লাখ ৯১ হাজার ২৬০ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন বেড়েছে ১৯.৯১ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮০.৮৪ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১১.৩৩ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৬.১৪ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ১.৭০ শতাংশ।

সপ্তাহ শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৬৭.৫০ পয়েন্ট বা ০.৭৭ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৭৪৩ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাতবদল হওয়ার ৩০৮টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৬৩টি কোম্পানির। আর দর কমেছে ১২৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১০০ কোটি ৭ লাখ ৭৯ হাজার ৩৮৩ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top