রিং সাইন টেক্সটাইল নিয়ে গুজব

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্রখাতের রিং সাইন টেক্সটাইলস লিমিটেডের পরিচালকরা আইপিও থেকে উত্তোলিত অর্থ নিয়ে বিদেশে চলে গেছেন এমন গুজব উঠেছে। সাধারণ বিনিয়োগকারী তথা পুঁজিবাজারে কোম্পানিটিকে ঘিরে নেতিবাচক মনোভাব তৈরির উদ্দেশ্যে এক শ্রেণীর স্বার্থানেস্বী মহল কোম্পানিটির বিরুদ্ধে গুজব ছড়িয়েছে যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

জানা যায়, যন্ত্রপাতি ও কলকব্জা ক্রয়, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিও খরচ খাতে ব্যয় করার জন্য পুঁজিবাজার থেকে রিংসাইন ১৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। উত্তোলিত অর্থের যে পরিমাণ অংশ দিয়ে ব্যাংক ঋণ পরিশোধের কথা ছিল অর্থাৎ ৫০ কোটি টাকা  তা সম্পূর্ণ পরিশোধ করেছে রিং সাইন টেক্সটাইল। এছাড়া আইপিও খরচ বাবদ ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা খরচ করা হয়েছে। বাকি যন্ত্রপাতি ও কলকব্জা ক্রয় সংক্রান্ত প্রজেক্টের জন্য যে অর্থ বরাদ্দ রয়েছে তা কোম্পানির ব্যাংক অ্যাকাউন্টেই রয়েছে। এই আইপিও অর্থ ব্যবহারের সময়সীমা ২০২১ সালের ৫ এপ্রিল। এ সময়ের মধ্যে আইপিও থেকে উত্তোলিত অর্থের সম্পূর্ণ ব্যবহার করবে রিং সাইন টেক্সটাইল। রিংসাইনের আইপিও’র সম্পূর্ণ অর্থ ব্রাক ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে রয়েছে। এই আইপিও’র অর্থ অন্য আরেকটি ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরের জন্য কোম্পানির ওপর এক ধরণের চাপ প্রয়োগের চেষ্টা চালানো হচ্ছে। যার সূত্র ধরেই রিংসাইনের বিরুদ্ধে গুজব ছড়ানো হয়েছে।

রিংসাইন নিয়ে বাজারে যে গুজব চলছে সে বিষয়ে জানতে চাইলে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ জানায়, রিংসাইন একটি প্রথম সারির, বৃহৎ, হাজার কোটি টাকার বেশি turn over সমৃদ্ধ কোম্পানী যার turn over পরিশোধিত মূলধনের দ্বিগুনেরও বেশি। কোম্পানিটিতে ৩ জন Independent Director সহ সর্বমোট ১২ জন Director রয়েছে যার মধ্যে Independent Director ছাড়া বাকি ৯ জনই বিদেশি। উক্ত ৯ জন বিদেশি Director কর্তৃক Ring Shine প্রায় ২২ বছর যাবত বাংলাদেশে সুনামের সঙ্গে ব্যবসা পরিচালিত হয়ে আসছে। কোম্পানিটি Dhaka EPZ এর প্রায় ২০ শতাংশ এলাকা নিয়ে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এ কোম্পানি নিয়ে যে গুজব ছড়ানো হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এ ব্যাপারে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের সচেতন হওয়ার পাশাপাশি তথ্য নিশ্চিত হতে কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করার আহবান জানায় রিং সাইন কর্তৃপক্ষ।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

২ Comments

  1. Md afsar uddin said:

    এদের কাজ গুজব তৈরি করে কম দামে শেয়ার হাতিয়ে নেওয়া

  2. Abdu jabber said:

    তাহলে ফেইস ভ্যালুর নিচে মার্কেট প্রাইজ?

Top