করোনার থাবায় কুপোকাত বিশ্ব শেয়ারবাজার

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: করোনাভাইরাসের আতঙ্কে বিশ্বের প্রায় সব শেয়ারবাজারেই রয়েছে নেতিবাচক প্রভাব। আমেরিকার অবস্থা বেশ শোচনীয় থাকলেও ইউরোপ ও এশিয়ার শেয়ারবাজারের সূচকের উত্থানে সপ্তাহ শেষ হওয়ায় আতঙ্ক কিছুটা কমেছে।

নিম্নে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও এশিয়ার শেয়ারবাজারের চিত্র তুলে ধরা হলো:

যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ারবাজার: করোনার আতঙ্কে ব্যাপক দরপতনে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ারবাজার। তবে সারা সপ্তাহজুড়ে যে পতন হয়েছে তাতে গড়ে সাপ্তাহিক সূচকের ব্যাপক পতন হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ারবাজার ডাউ জোন্সের সূচক সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ৪.৫৫ শতাংশ বা ৯১৩.২১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৯১৭৩.৯৮ পয়েন্ট। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ১৭.৩০ শতাংশ কমেছে। এসঅ্যান্ডপি ৫০০ ইনডেক্স ৪.৩৪ শতাংশ বা ১০৪.৪৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ২৩০৪.৯২ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে এসঅ্যান্ডপি’র সূচক ১৪.৯৮ শতাংশ কমেছে। নাসডাক কম্পোজিট সূচক আগের দিনের চেয়ে ৩.৭৯ শতাংশ বা ২৭১.০৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৬৮৭৯.৫২ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে নাসডাকের সূচক ১২.৬৪ শতাংশ কমেছে। এছাড়া নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জের কম্পোজিট ইনডেক্সে সূচক আগের দিনের চেয়ে ৩.৪৭ শতাংশ বা ৩২৮.১৫ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৯১৩৩.১৬ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে নিউইয়র্ক কম্পোজিট সূচক ১৫.৮৪ শতাংশ কমেছে।

ইউরোপের শেয়ারবাজার:   আমেরিকার মতো এতো বাজে পরিস্থিতি না হলেও সপ্তাহজুড়ে ইউরোপের শেয়ারবাজাগুলোতে দরপতন হয়েছে। তবে শেষ কার্যদিবসে সূচকের উত্থানে কিছুটা প্রাণ ফিরে পেয়েছে। যুক্তরাজ্যের এফটিএসই-১০০ ইনডেক্স গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ০.৭৬ শতাংশ বা ৩৯.১৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫১৯০.৭৮ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে এফটিএসই-১০০ সূচক ৩.২৭ শতাংশ কমেছে। জার্মানির শেয়ারবাজার ডেক্স ইনডেক্স এর সূচক আগের দিনের চেয়ে ৩.৭০ শতাংশ বা ৩১৮.৫২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৯২৮.৯৫ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ৩.২৮ শতাংশ কমেছে। ফ্রান্সের সিএসি-৪০ ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫.০১ শতাংশ বা ১৯৩.৩০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪০৪৮.৮০ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ১.৬৯ শতাংশ কমেছে। ইতালির স্টক এক্সচেঞ্জ এফটিএসই এমআইবি ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ১.৭১ শতাংশ বা ২৬৪.৮৮ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৭৩১.৮৫ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ১.৩৯ শতাংশ কমেছে।

এশিয়ার শেয়ারবাজার:  ইউরোপের শেয়ারবাজারের মতো সপ্তাহের শেষদিনে ঘুরে দাঁড়ালেও আতঙ্ক কাটেনি এশিয়ার শেয়ারবাজারে। গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে জাপানের শেয়ারবাজার নিক্কি ২২৫ এর সূচক আগের দিনের চেয়ে ১.০৪ শতাংশ বা ১৭৩.৭২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬৫৫২.৮৩ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ১০.৮১ শতাংশ কমেছে। হংকংয়ের শেয়ারবাজার হ্যাং সেং এর সূচক আগের দিনের চেয়ে ৫.০৫ শতাংশ বা ১০৯৫.৯৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২৮০৫.০৭ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ৫.১১ শতাংশ কমেছে। চীনের শেয়ারবাজার সাংহাই সী কম্পোজিটের সূচক আগের দিনের তুলনায় ১.৬১ শতাংশ বা ৪৩.৪৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭৪৫.৬২ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ৪.৯১ শতাংশ কমেছে। ভারতের বোম্বে স্টক এক্সচেঞ্জের সেনসেক্স-৩০ ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৫.৭৫ শতাংশ বা ১৬২৭.৭৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯৯১৫.৯৬ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ১২.২৮ শতাংশ কমেছে। এছাড়া সিঙ্গাপুরের এফটিএসই স্ট্রেট টাইম ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৪.৩২ শতাংশ বা ৯৯.৭৪ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪১০.৭৪ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে স্টক এক্সচেঞ্জটির সূচক ৮.৪৮ শতাংশ কমেছে।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

One Comment;

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top