যে কারণে শেয়ার দর বাড়া-কমার চিত্র দেখা যাচ্ছে না

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে ১৪ পয়েন্ট সূচকের পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। কিন্তু কয়টি কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে বা কমেছে অথবা অপরবর্তীত রয়েছে তার চিত্র দেখা যাচ্ছে না। যদিও অন্যান্য সাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, আজ লেনদেন হওয়া মোট ৩৪৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১০৮টির দর বেড়েছে, কমেছে ২০৯টির এবং অপরবর্তীত রয়েছে ৩১টি শেয়ার বা ইউনিট দর। কিন্তু ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এই তথ্য প্রকাশ করা হচ্ছে না। কারণ গেল সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ফ্লোর প্রাইস নির্ধারণে যে নতুন নিয়ম চালু করা হয়েছে তার আপডেট করতে ডিএসই কর্তৃপক্ষের সময় লেগে যাচ্ছে না। আর শেয়ার দর আপডেট না করা পর্যন্ত ডিএসই’র ওয়েবসাইটে এই চিত্র দেখা যাবে না বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, বিএসইসি’র জারি করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ওপেনিং প্রাইস নির্ধারিত হবে ১৯ মার্চ ২০২০ এর আগের ৫ কার্যদিবসের গড় ক্লোজিং প্রাইস। অর্থাৎ কোন কোম্পানির শেয়ার বা ইউনিটের গত ৫ কার্যদিবসের যে দরে ক্লোজিং হয়েছে তার গড় মূল্যই হবে ওপেনিং প্রাইস। এছাড়া প্রত্যেক সিকিউরিটিজের এই গড় মূল্যই ফ্লোর প্রাইস এবং সার্কিট ব্রেকারের সর্বনিম্ন সীমা হিসেবে বিবেচিত হবে। এদিকে সার্কিট ব্রেকারের ঊর্ধ্বসীমা আগের নিয়মেই কার্যকর হবে। এ নির্দেশনা পরবর্তী সিদ্ধান্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

বিএসইসির এই নির্দেশনার পর বৃহস্পতিবার ৩৭১ পয়েন্ট সূচকের উত্থানের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়। কিন্তু আজ রোববার সূচকের সামান্য পতন হলেও ২০০টিরও বেশি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের দর কমেছে। কিন্তু এই তথ্য ডিএসই’র ওয়েবসাইটে দেখানো হচ্ছে না। কারণ হিসেবে জানতে চাইলে এ ব্যাপারে ডিএসই’র একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা শেয়ারবাজারনিউজ ডটকমকে জানান, ফ্লোর প্রাইস নির্ধারণে যে পদ্ধতি অবলম্বনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে তার আপডেট করতে অনেক সময় লেগে যাচ্ছে। আর যতদিন এই আপডেট সম্পূর্ণ না হবে ততদিন শেয়ার দর বাড়া-কমার চিত্র দেখা যাবে না।

 

শেয়ারবাজারনিউজ/ম.সা

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top