নমুনা ছাড়াই ৫ সেকেন্ডে শনাক্ত হবে করোনা রোগী

শেয়ারবাজার ডেস্ক : করোনাভাইরাসের আঘাতে বিপর্যস্ত ইরান একটি যাদুকরী যন্ত্র (Device) আবিষ্কার করেছে। এই যন্ত্রের মাধ্যমে কোনো মানুষের নমুনা না নিয়েও করোনাভাইরাসের উপস্থিতি আছে কি-না তা শনাক্ত করা যাবে। আর তার জন্য সময় লাগবে মাত্র ৫ সেকেন্ড।

শুধু তা-ই নয়,কোনো এলাকায় করোনাভাইরাস আছে কি-না, সেটিও শনাক্ত করতে সক্ষম এই যন্ত্র। এলাকাটি জীবাণুমুক্ত না করা পর্যন্ত ওই যন্ত্র অ্যালার্ট দিতে থাকবে।

আজ বুধবার (১৫ এপ্রিল) এক অনুষ্ঠানে ইসলামিক রেভোলিউশন গার্ড কর্পসের (আইআরজিসি) কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি এই যন্ত্রটি উন্মোচন করেছেন।

অনুষ্ঠানে মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছিলেন, এই অর্জনটি যুগান্তকারী। এটি বাসিজ (ইরানের স্বেচ্ছাসেবক দল) উদ্ভাবন করেছে। তিনি বলেন,যন্ত্রটিতে এক ধরনের চৌম্বকীয় ক্ষেত্র তৈরি করা। এটি একশ মিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত স্থানগুলো দেখিয়ে দেবে। করোনা রোগীদের জন্য রক্তের পরীক্ষা করার প্রয়োজন হবে না। এটি একটি নির্দিষ্ট দূরবর্তী অবস্থান থেকে কাজ করে।

জেনারেল হোসেইন সালামি বলেছেন,ডিভাইসটি বিভিন্ন হাসপাতালে পরীক্ষা করা হয়েছে। এটি ৮০ শতাংশ কার্যকার বলে প্রমাণিত হয়েছে। মহামারি করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ এবং ভয়াবহ এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকানোর লক্ষেই এই যুগান্তকরী উদ্ভাবন।

বিশ্বের যে কয়টি দেশে সবচেয়ে বেশি করোনা ছড়িয়েছে, ইরান তাদের অন্যতম। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৭৪ হাজার ৮৭৭ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তের সংখ্যায় বিশ্বে ইরানের অবস্থান ৭ম। আর দেশটিকে গতকাল পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৪ হাজার ৭৭৭ জন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যায় অর্থনৈতিক অবরোধের কারণে ইরানের অর্থনীতি যথেষ্ট সংকটে। এছাড়া অবরোধের কারণে দেশটি অন্য দেশ থেকে কোনো চিকিৎসাসরঞ্জাম কিনতে পারছে না। মার্কিন বাধার  কারণে অন্য কোনো দেশ এত বড় বিপদের সময়েও সাহস করে ইরানের পাশে দাঁড়াতে পারছে না। কিন্তু এর পরও দেশটি মৃত্যুর সংখ্যা সীমিত পর্যায়ে রাখতে সক্ষম হয়েছে শুধু নিজেদের দেশপ্রেম, ঐক্য আর সাহসী মরিয়া চেষ্টার মাধ্যমে।

নতুন যন্ত্র আবিস্কারের ফলে দেশটির পক্ষে করোনা নিয়ন্ত্রণে আনা আরও সহজ হবে আশা করা যায়। কারণ দ্রুততম সময়ে আক্রান্ত ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে তাকে আইসোলেশনে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে তার মাধ্যমে নতুন সংক্রমণের ঘটনা একেবারেই কমে আসবে। অন্যদিকে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত করে প্রতিটি এলাকাকে জীবাণুমুক্ত করা হলে সেই এলাকা থেকে নতুন করে ছড়াতে পারবে না প্রিণঘাতী এই ভাইরাস।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

আপনার মন্তব্য

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top