শেয়ার ক্রয়ের ঝোঁক বাড়ছে: গড় লেনদেন ১১‘শ কোটি টাকা

শেয়ারবাজার রিপোর্ট: সাপ্তাহিক ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে দুই দিন সূচক কমলেও বাকি তিন কার্যদিবস বেড়েছে সূচক। এরই ধারাবাহিকতায় গত সপ্তাহে সব ধরনের সূচকের উত্থান ঘটে। এদিকে সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা বেড়েছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৬.৪৩ শতাংশ।গত সপ্তাহে ডিএইতে গড় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১২৭ কোটি ৬ লাখ ৬৪ হাজার ৩২৭ টাকা।

বাজারের সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় বিনিয়োগকারীর মধ্যে আগ্রহ বাড়ছে। যার কারনে বাড়ছে লেনদেন। তবে ধারবাহিকতায় উত্থানের ফলে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বাজার কিছুটা পর্যবেক্ষণ করছেন। যে কারনে গত সপ্তাহে তিন কার্যদিবস সূচকে বড় ধরণের কোন প্রভাব পড়েনি বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহ শেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ১.৮৬ শতাংশ বা ৯৩.৩৬ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ বেড়েছে ১.২৩ শতাংশ বা ২১.৩৭ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ০.৩৯ শতাংশ বা ৪.৫৩ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৬২টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ২১২টির কোম্পানির। আর দর কমেছে ১১৯টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির এবং লেনদেন হয়নি ৩টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ৫ হাজার ৬৩৫ কোটি ৩৩ লাখ ২১ হাজার ৬৩৬ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৫ হাজার ২৯৪ কোটি ৭৯ লাখ ৮৯ হাজার ৫৯১ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন বেড়েছে ৬.৪৩ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৭৯.২৯ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১৬.১৬ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১.৭৮ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ২.৭৭ শতাংশ।

সপ্তাহ শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ১৫৪.৩১ পয়েন্ট বা ১.৭৯ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৭৫৬ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাতবদল হওয়ার ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৬ কোম্পানির। আর দর কমেছে ১১১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ১৭৫ কোটি ৪১ লাখ ২৩ হাজার ৮৩৮ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

শেয়ারবাজারনিউজ/মু

 

আপনার মন্তব্য

Top