আজ: শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১ইং, ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

১৯ জানুয়ারী ২০২১, মঙ্গলবার |


গরুর মাংস খাওয়া নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে, অভিনেত্রীকে গণধর্ষণ-হত্যার হুমকি

শেয়ারবাজার ডেস্ক: গরুর মাংস খাওয়া নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত। তাকে গণধর্ষণ ও গলা কেটে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে তার মাকেও দেওয়া হয়েছে হুমকি। ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতীয় এবিপি আনন্দ টিভির একটি টক শো’য়ে গরুর মাংস খাওয়া নিয়ে কথা বলেন দেবলীনা। এরপরই তাকে বাজে কথা, গণধর্ষণ ও খুনের হুমকি দেওয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে যাদবপুর থানায় একটি মামলা করেন এই অভিনেত্রী।

ওই টক শো’য়ে বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষের সঙ্গে আলাপ করেছিলেন দেবলীনা। গায়ক, পরিচালক অনিন্দ্য চক্রবর্তীর কথার সূত্র ধরে তিনি বলেন, নিরামিষভোজী হলেও প্রয়োজনে তার বাড়িতে গিয়ে নবমীর দিন গরুর মাংস রান্না করে দিতে পারেন। খাদ্য-খাদ্যাভাস এবং ধর্ম বিষয়ে তিনি এমনই মত প্রকাশ করেন। এরপরই তাকে সামাজিক মাধ্যমে হেয় প্রতিপন্ন করা হয়। তার শরীর নিয়ে বাজে মন্তব্য করা হয়। গালাগাল দেওয়া হয়।

মামলা করার পাশাপাশি বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন দেবলীনা। তিনি বলেন, ‘এখন দেখছি এটাই রেওয়াজ। কোনো নারী অন্য স্বরে কথা বললেই তাকে গণধর্ষণ আর গলা কেটে দেওয়ার হুমকি দেওয়া যায়? বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, গায়ক ও অভিনেতা বাবুল সুপ্রিয় এক ইন্টারভিউতে বলেছিলেন, তিনি কলেজ লাইফে বহুবার গরুর মাংস খেয়েছেন, তা নিয়ে কিন্তু কোনো প্রশ্ন করা হয়নি যে উনি কেন গোমাংস খেলেন? অথচ সেই বিজেপি কর্মী পেশায় উকিল তরুণজ্যোতি তিওয়ারি আমাকে এ বিষয়ে কথা বলার জন্য হুমকিই নয়, আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকিও দেন। তিনি কেমন উকিল যার পোস্টের তলায় একজন নারীর মাকে নিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করা হচ্ছে আর তিনি চুপ!’

বিষয়টি নিয়ে অনিন্দ্য চক্রবর্তী বলেন, ‘কোনো রাজনীতি থেকে নয়, একজন নাগরিক হিসেবে আমি আমার কথা বলেছিলাম। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় যা লেখা হচ্ছে ভাবতেই পারিনি। ভোট আসছে। তার আগে অনেক বিষয় নিয়ে কথা হয়। এই যে মানুষ কমেন্ট করছেন তাদেরও স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে মত প্রকাশের অধিকার আছে।’

শেয়ারবাজার নিউজ/মি

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.