আজ: শনিবার, ১৯ জুন ২০২১ইং, ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৭ জুন ২০২১, সোমবার |


kidarkar

বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে কারখানা করতে বেজার সাথে ম্যারিকোর চুক্তি

শেয়ারবাজার ডেস্ক: শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানি ম্যারিকো বাংলাদেশ লিমিটেড বড় ধরনের বিনিয়োগে যাচ্ছে। প্রায় ২২০ কোটি টাকা বিনিয়োগে চট্টগ্রামের মিরসরাইতে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে নতুন কারখানা স্থাপন করবে কোম্পানিটি।

কোম্পানি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানিয়েছে, নতুন কারখানা স্থাপনের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে ১০ একর জমি ইজারা নিয়েছে বহুজাতিক কোম্পানি ম্যারিকো বাংলাদেশ। এই কারখানায় প্রসাধনী সামগ্রী ও পিইটি বোতল উৎপাদন করবে কোম্পানিটি। নতুন কারখানায় প্রায় ৫০০ মানুষের কর্মসংস্থান হবে।

আজ রোববার (৬ জুন) জমি ইজারা নেওয়ার জন্য বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এর সঙ্গে একটি চুক্তি করেছে ম্যারিকো বাংলাদেশ। রাজধানীর ঢাকায় বেজার প্রধান কার্যালয়ে  চুক্তিতে সই করেন সংস্থার নির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ আলী আহসান ও ম্যারিকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশিষ গোপাল। এ সময় বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরীসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বেজা জানায়, “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরের ১০ একর জমিতে কারখানা স্থাপন করবে ম্যারিকো, যা হবে এই দেশে বহুজাতিক কোম্পানিটির তৃতীয় কারখানা।

“এখানে প্রায় ২৭ মিলিয়ন ডলার (২২০ কোটি টাকার সমপরিমাণ) বিনিয়োগের মাধ্যমে প্রায় ৫০০লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।“
চুক্তি সই অনুষ্ঠানে আশীষ গোপাল জানান, তাদের কোম্পানির ৯৯ শতাংশ পণ্য বাংলাদেশে স্থানীয়ভাবে উৎপাদন করা হয়।

১০টি ক্যাটাগরির ৩৬টি ব্র্যান্ড রয়েছে ম্যারিকোর এবং দক্ষিণ এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের বাজারে তারা পণ্য রপ্তানি করেন।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেন, মিরসরাইতে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মিত হচ্ছে এবং এর ফলে এদেশে শিল্পায়নের অভূতপূর্ব বিপ্লব সাধিত হবে এবং জনগণের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যসমূহ পূরণ হবে।

প্যারাসুটসহ বেশ কয়েকটি সৌন্দর্য ও প্রসাধনীর ব্র্যান্ডের কোম্পানি ম্যারিকো বাংলাদেশ ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশের বাজারে যাত্রা শুরু করে। কোম্পানিটি ২০০৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়। ফিক্সডপ্রাইস পদ্ধতির প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) ৮ গুণ প্রিমিয়াম নিয়ে তথা ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের শেয়ারে ৮০ টাকা প্রিমিয়াম নিয়ে ৯০ টাকা দরে শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানিটি। এর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ১৩ কোটি ৪২ লাখ টাকা সংগ্রহ করে।

ব্যবসায় ধারাবাহিক প্রবৃদ্ধি আর আকর্ষণীয় লভ্যাংশের কারণে পুঁজিবাজারে ম্যারিকো বিনিয়োগকারীদের আস্থা অর্জন করে নেয় ব্যাপকভাবে। এর প্রভাব পড়ে শেয়ারের দাম। আইপিওতে ৯০ টাকা দরে বিক্রিত শেয়ার এখন ২ হাজার টাকার উপরে কেনাবেচা হয় স্টক এক্সচেঞ্জে।

গত বছরের ৭ অক্টোবর ম্যারিকো বাংলাদেশের পরিচালনা পর্ষদ ২২০ কোটি টাকা ব্যয়ে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে নতুন কারখানা স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়। ওই সিদ্ধান্ত অনুসারে, আজ বেজার সাথে চুক্তি করে প্রতিষ্ঠানটি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

kidarkar