আজ: শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১ইং, ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৮ জুন ২০২১, মঙ্গলবার |


kidarkar

কানাডার মুসলমানদের পাশে ট্রুডো

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কানাডায় ট্রাক তুলে দিয়ে একটি মুসলমান পরিবারের চার সদস্যকে হত্যার ঘটনায় হতবাক দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

এ ঘটনায় নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় থাকা কানাডার মুসলমান সম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করে ট্রুডো জানিয়েছেন, সারা দেশের মুসলমানদের সঙ্গে আছে তার সরকার।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যার ওই ট্রাক হামলাকে ‘বিদ্বেষপ্রসূত অপরাধ’ আখ্যা দিয়েছে লন্ডন পুলিশ সার্ভিস।

তারা জানিয়েছে, পরিকল্পিতভাবে ও মুসলমান জেনেই পরিবারটির ওপর ট্রাক উঠিয়ে দেয় চালক। হতাহতদের সঙ্গে তার পূর্বপরিচয় ছিল না।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ট্রুডো।

নিহতদের স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে তিনি লিখেন, ‘ওন্টারিওর লন্ডনের ঘটনার খবর পেয়ে আমি স্তম্ভিত হয়ে গেছি। বিদ্বেষপ্রসূত এ আচরণের বলি হয়েছেন যারা, তাদের স্বজনদের পাশে আছি আমরা।

‘হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশুটির পাশে আছি। আপনাদের প্রত্যেকের জন্য সমবেদনা জানাচ্ছি। কঠিন এই সময় কাটিয়ে ওঠায় আমরা আপনাদেরই সঙ্গী।’

টুইটারে স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় লেখা ওই পোস্টে এ হামলাকে ‘নিকৃষ্ট’ আখ্যা দেন ট্রুডো।

তিনি আরও বলেন, ‘লন্ডনের মুসলমান সম্প্রদায় এবং সারা দেশের মুসলমানদের বলছি, নিশ্চিত থাকুন যে আমরা আপনাদের সঙ্গেই আছি।

‘এ দেশের কোথাও ইসলামভীতির কোনো জায়গা নেই। এমন অপরাধ নিকৃষ্ট ও বিশ্বাসঘাতকতার শামিল। এগুলো বন্ধ হতেই হবে।’

হামলাকারী ২০ বছরের তরুণ নাথানিয়েল ভেল্টম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে চারটি হত্যা মামলা ও একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করা হয়েছে। গঠন করা হতে পারে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগও।

নিহতদের স্বজনদের অনুরোধে হামলায় হতাহতদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করেনি প্রশাসন।

তবে নিহতদের মধ্যে আছেন ৭৭ ও ৪৪ বছর বয়সী দুই নারী, ১৫ বছরের এক কিশোরী ও ৪৬ বছর বয়সী এক পুরুষ।

পরিবারটির বেঁচে যাওয়া একমাত্র সদস্য নয় বছরের একটি ছেলে শিশু, গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, হামলার আগে লন্ডনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের হাইড পার্ক রোডের পাশ দিয়ে হাঁটছিল পরিবারটির সদস্যরা। রাস্তা পার হওয়ার জন্য অপেক্ষায় থাকার সময় তাদের ওপর ট্রাক তুলে দেয় চালক।

কানাডার সরকারি পরিসংখ্যান সংস্থা চলতি বছরের মার্চ মাসে জানিয়েছে, ২০১৯ সালে মুসলমানদের ওপর ১৮১টি হামলার ঘটনা নথিবদ্ধ করেছে পুলিশ। ২০১৮ সালে এ সংখ্যা ছিল ১৬৬। কেবল ধর্মপরিচয়ের কারণে হামলার শিকার হয়েছেন তারা।

তবে কানাডার ইতিহাসে মুসলমান সম্প্রদায়ের ওপর সবচেয়ে ভয়াবহ হামলাটি হয় ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে। কিউবেকের একটি মসজিদে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে ছয়জনকে হত্যা করে ঘাতক।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.