আজ: বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১ইং, ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

সর্বশেষ আপডেট:

০৭ জুলাই ২০২১, বুধবার |



kidarkar

৬ মাসে পাওয়ার গ্রিডের সাড়ে ৫ কোটি শেয়ার বিক্রি

শেয়ারবাজার ডেস্ক: গত ছয় মাসে পুঁজিবাজারের মাধ্যমে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানির প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি শেয়ার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড (বিপিডিবি)। রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানিগুলোর মালিকানার আরও কিছুটা জনগণের কাছে ছেড়ে দেওয়ার অংশ হিসেবে এ শেয়ার বিক্রি করা হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে  জানা গেছে।

পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশও (পিজিসিবি) রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি। এটি দেশব্যাপী বিদ্যুৎ সরবরারের একমাত্র কোম্পানি। এর উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান বিপিডিবি।

সরকারের সিদ্ধান্তে শেয়ার বিক্রির আগে বিপিডিবির কাছে পাওয়ার গ্রিডের মোট শেয়ার ছিল ৬০ কোটি ৩২ লাখ ৫৯ হাজার ৭৪৮টি, যা পাওয়ার গ্রিডের মোট শেয়ারের ৮৪ দশমিক ৬৪ শতাংশ।

বিপিডিবি দুই দফায় পাওয়ার গ্রিডের মোট ৬ কোটি ৮৭ লাখ ০৬ হাজার ৮৮১টি শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছিল।

জানা গেছে, বিপিডিবি গত ছয় মাসে সাড়ে পাঁচ কোটি শেয়ার প্রতিটি শেয়ার গড়ে ৪৭ টাকা দরে বিক্রি করেছে পেয়েছে আড়াইশ’ কোটি টাকারও বেশি।

এ প্রসঙ্গে পাওয়ার গ্রিডের কোম্পানি সচিব মো. জাহাঙ্গীর আজাদ বলেন, পুঁজিবাজারে ভালো মানের কোম্পানির শেয়ার সরবরাহ বাড়ানোর উদ্দেশ্যে সরকারি কোম্পানির আরও শেয়ার জনগণের মাঝে ছেড়ে দেওয়ার অংশ হিসেবে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানির শেয়ার বিক্রি করছে বিপিডিবি।

সরকারের সিদ্ধান্তে প্রথম দফায় গত বছরের ২১ ডিসেম্বর ৩ কোটি ৪৩ লাখ ৫৩ হাজার ৪৪০টি শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দেয় বিপিডিবি। এ জন্য তিন মাস সময় পেয়েছিল। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিপিডিবি ওই শেয়ার গড়ে ৫০ টাকা দরে বিক্রি করেছিল। এর মধ্যে গত ৪ জানুয়ারি একদিনেই সোয়া কোটির বেশি শেয়ার বিক্রি হয়ে যায়।

এরপর গত ১৫ মার্চ ফের ৩ কোটি ৪৩ লাখ ৫৩ হাজার ৪৪১টি শেয়ার বিক্রির ঘোষণা দিয়েছিল বিপিডিবি। এবার সময় পেয়েছিল দেড় মাস। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিক্রি করতে না পারায় গত এপ্রিলের শেষে আরো দুই মাস সময় বাড়িয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। যা গত ৩০ জুন শেষ হয়।

সূত্র জানিয়েছে, দ্বিতীয় দফার ৩ কোটি ৪৩ লাখ শেয়ারের মধ্যে ২ কোটি ৪০ লাখের বেশি শেয়ার বিক্রি হয়েছে। এখনও বাকি আছে প্রায় ১ কোটি ৪০ লাখ। এ শেয়ার বিক্রির জন্য আরো কিছুটা সময় চেয়ে আবেদন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। আগামী ২/৩দিনের মধ্যে এ বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থার সম্মতি মিলবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

আজ এ কোম্পানির শেয়ার ৪৫ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ৪৮ টাকা দরে কেনাবেচা হয়েছে। দুপুর সাড়ে ১২টায় শেয়ারটি ৪৭ টাকা ৪০ পয়সায় কেনাবেচা হতে দেখা গেছে। এ সময় পর্যন্ত কোম্পানিটির প্রায় ৩২ লাখ ৪৫ হাজার শেয়ার হাতবদল হয়েছে।

গত এক বছরে পাওয়ার গ্রিডের শেয়ার সর্বনিম্ন ৪০ টাকা ৪০ পয়সা থেকে সর্বোচ্চ ৬২ টাকা ৮০ পয়সা দরে কেনাবেচা হয়েছে।

গত ১৫ জানুয়ারি শেয়ারটি সর্বোচ্চ দরে এবং গত ১১ এপ্রিল সর্বনিম্ন দরে কেনাবেচা হয়।

বিপিডিবি শেয়ার বিক্রির শুরুর পর গত ৩০ জুন পর্যন্ত পাওয়ার গ্রিডের প্রায় সোয়া ২১ কোটি শেয়ার হাতবদল হয়েছে। এর মধ্যে চার ভাগের এক ভাগ শেয়ারের বিক্রেতা ছিল বিপিডিবি।

আপনার মতামত দিন

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

kidarkar